kolkata bengali news

ডেস্ক: #MeToo মুভমেন্ট নিয়ে প্রথম মুখ খুলেছিলেন অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্ত। একের পর বিস্ফোরক অভিযোগে গোটা বলিউড কেঁপে উঠেছিল। নাম জড়িয়েছিল একাধিক তারকাদের। তবে এবার তিনি সোজা আক্রমণ করলেন অভিনেতা অজয় দেবগণকে। তিনি বলেন, সবাই এখানে মুখোশ পরে থাকে। একটা মিথ্যে জগতে বসবাস করছে। মেরুদণ্ডহীন মানুষেরা সমাজে একটি দল গঠন করেছে। তবে আক্রমণের পেছনে কারণ হল বর্ষীয়ান অভিনেতা অলোক নাথ। সম্প্রতি, অজয় দেবগণের নতুন ছবি ‘দে দে প্যায় দে’-র ট্রেলার প্রকাশ্যে এসেছে। এই ছবিতে অভিনেতার বাবার চরিত্রে দেখা গিয়েছে অলোক নাথকে। তনুশ্রী প্রশ্ন তোলেন, এই সমস্ত মানুষদের সঙ্গে কেন কাজ করা হচ্ছে? অপরাধমূলক এবং জঘন্য কাজ করেছেন তিনি।

অভিনেতার বিরুদ্ধে ধর্ষণ এবং যৌন নিগ্রহের মতো গুরুতর অভিযোগ করেছেন প্রযোজক এবং লেখিকা ভিনতা নন্দা অভিযোগ সামনে আসার পরই নড়েচড়ে বসে বলিউড। চারিদিক থেকে নিন্দার ঝড় উঠতে থাকে। সব অভিযোগকে অস্বীকার করেছেন বর্ষীয়ান অভিনেতা অলোক নাথ। পাশাপাশি অভিনেত্রী বলেন, যার বিরুদ্ধে এমন গুরুতর অভিযোগও রয়েছে সে কীভাবে কাজ করার সুযোগ পাচ্ছে? কেন কেউ এই বিষয় নিয়ে মুখ খুলছেন না? তনুশ্রী আরও বলেন, ট্রেলার মুক্তি হওয়ার পরে কেন কেউ প্রশ্ন তোলেননি? তাঁকে কেন বদল করা হয়নি? অলোক নাথের বদলে অন্য কাউকে কেন ছবিতে নেওয়া হয়নি? নতুন করেও ছবির শ্যুটিং হতে পারত। কিন্তু আপনারা কেউ এই জিনিস নিয়ে একটুও ভাবেননি।

প্রসঙ্গত গত বছরে #MeToo নিয়ে মুখ খোলেন তনুশ্রী দত্ত। তিনি অভিযোগ করেন নানা পাটেকর তাঁর সঙ্গে অসভ্য আচরণ করেছেন। যৌন নিগ্রহের মতো গুরুতর অভিযোগ তুলেছেন। শুধু নানা পাটেকরই নয় তালিকায় রয়েছেন কোরিওগ্রাফার গণেশ আচার্য। এরপর পরিচালক সাজিদ খান, বিকাশ বহেল, সঙ্গীত শিল্পী কৈলাশ খেরের নাম জড়িয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here