bengali news

Highlights

  • বিজেপির চাপে আহত ও ক্ষত-বিক্ষত হয়েছিল তাপস, রবীন্দ্র সদন থেকে বিস্ফোরক মমতা
  • অভিনেতা তাপস পালের মৃত্যুর জন্য কার্যত কেন্দ্রীয় সরকারের এজেন্সির দিকেই আঙুল তুলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়
  • রবীন্দ্র সদন থেকে দুপুরে মহাশ্মশান কেওড়াতলার উদ্দেশ্যে নিয়ে যাওয়া হবে তাপস পালের মরদেহ। সেখানে পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় হবে শেষকৃত্য

মহানগর ওয়েবডেস্ক: ‘বিজেপির চাপে আহত ও ক্ষত-বিক্ষত হয়েছিল তাপস। বড় অসময়ে মৃত্যু হল তাপসের। প্রতিহিংসামূলক কাজ করেছে কেন্দ্রীয় সরকার, কেন্দ্রের এজেন্সির চাপেই আমাদের তিনজন মারা গিয়েছে।’ এদিন রবীন্দ্র সদন থেকে তাপস পালের মৃত্যু প্রসঙ্গে বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অভিনেতা তাপস পালের মৃত্যুর জন্য কার্যত কেন্দ্রীয় সরকারের এজেন্সির দিকেই আঙুল তুলেছেন মমতা।

আজ রবীন্দ্র সদনে তাপস পালকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে গিয়ে সংবাদমাধ্যমের সামনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ”বিজেপির চাপে আমাদের তিনজন মারা গেল, প্রতিহিংসামূলক আচরণ করছে কেন্দ্রীয় সরকারর, দিনের পর দিন লাঞ্ছনা ও গঞ্জনা, সহ্য করতে হয়েছে তাপসকে। বিজেপির চাপেই আহত ও ক্ষত বিক্ষত হয়েছিল তাপস। বড় অসময়ে মৃত্যু হল তাপসের।” গতকাল রাতেই কলকাতায় নিয়ে আসা হয় তাপস পালের মরদেহ। তারপরে গতকালই তাঁর গলফ ক্লাবের বাড়িতে রাখা ছিল অভিনেতার দেহ। এদিন সকালে ১১-১টা পর্যন্ত রবীন্দ্র সদনে শেষ শ্রদ্ধা জানানোর জন্য মরদেহ রাখা রয়েছে রবীন্দ্র সদনে। সেখানে টলিউডের তারকারদের পাশাপাশি মন্ত্রীসভার একাধিক সদস্যদের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেইখানেই কেন্দ্রীয় সরকারের অধীনস্থ সংস্থার বিরুদ্ধে মন্তব্য করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

রোজভ্যালি থেকে সারদা প্রত্যেকটি চিটফান্ডের দুর্নীতি তদন্তের জন্য কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা রাজ্যের শাসকদলের একাধিক নেতাকে বারবার জিজ্ঞসাবাদের জন্য ডেকেছে এবং তাঁদের নিজস্ব হেফাজতে রেখেছে। রাজনৈতিক মহলের একাংশের দাবি, মুখ্যমন্ত্রীর এই মন্তব্য মূলত ওই সংস্থাগুলির বিরুদ্ধে। এর আগেও এই প্রসঙ্গে ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। উল্লেখ্য, রোজভ্যালি তদন্তের কারণে অভিনেতা তাপস পাল ১৩ মাস সিবিআই-এর হেফাজতে ছিলেন। গতকাল প্রয়াত হয়েছেন বাংলা সিনেমা জগতের অন্যতম বিখ্যাত অভিনেতা তথা দু’বারের তৃণমূল বিধায়ক-সাংসদ তাপস পাল। মঙ্গলবার ভোররাতে মুম্বইয়ের একটি বেসরকারি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। গতকালই রাত সাড়ে নটা নাগাদ কলকাতা বিমানবন্দরে নিয়ে আসা হয় তাঁর কফিন বন্দি দেহ।

কলকাতা বিমানবন্দরে অভিনেতা তাপস পালকে শ্রদ্ধা জানাতে এসেছিলেন মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস সহ অগণিত ভক্ত। কলকাতা বিমানবন্দর থেকে গলফগ্রিনের বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয় অভিনেতার দেহ। যে বিমানে মুম্বই থেকে দেহ নিয়ে আসা হয় সেই বিমানে তাঁর স্ত্রী নন্দিনী পালও আসেন। আজ রবীন্দ্র সদন থেকে দুপুরে মহাশ্মশান কেওড়াতলার উদ্দেশ্যে নিয়ে যাওয়া হবে তাপস পালের মরদেহ। সেখানে পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় হবে শেষকৃত্য।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here