national news

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: করোনা সতর্কতার জন্য একগুচ্ছ পদক্ষেপ নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার তথা রাজ্য সরকারের। এখন ও পর্যন্ত এইসব রকম পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়েছে সমস্ত বিরোধী দল। রবিবার ‘জনস্বার্থে বনধ’ ডেকেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। কেন্দ্রীয় সরকারের করোনা সংক্রান্ত অন্যান্য পদক্ষেপ সমর্থন করলেও, এই বনধের সমালোচনা করে সিপিএম। এদিকে সিপিএমের এই আচরণকে ‘হিপোক্রিসি’ বলে কটাক্ষ করেন মেঘালয়ের রাজ্যপাল তথা প্রবীণ বিজেপি নেতা তথাগত রায়।

এদিন তথাগত রায় বলেন, ‘বামপন্থীরা জনস্বার্থে বনধ ডাকে। তারা জনতা কার্ফু নিয়ে দিনমজুরদের রোজগার কীভাবে হবে সেটার প্রশ্ন তুলছে! হিপোক্রিসি আর কত দেখাবেন?’ শুক্রবার তথাগতবাবু তাঁর বাংলা ও ইংরেজিতে টুইটবার্তা হ্যাশট্যাগ সিপিআইএমস্পিক, হ্যাশট্যাগ ইন্ডিয়াফাইটসকরোনা, হ্যাশট্যাগ জনতাকার্ফু প্রভৃতির সঙ্গে যুক্ত করেছেন।

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার রাতে প্রধানমন্ত্রী মোদীর প্রস্তাবিত ‘জনতা কার্ফু’ নিয়ে প্রকাশ্য সমালোচনা করেন সীতারাম ইয়েচুরি, সুজন চক্রবর্তী, মহম্মদ সেলিমের মতো বাম নেতারা। প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যকে কটাক্ষ করে সেলিম বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর নিদানে করোনা প্রতিরোধ সম্ভব নয়। প্রতিদিন খেটে খাওয়া অসংগঠিত ক্ষেত্রের শ্রমিক-কর্মচারীদের কি হবে একবারও বললেন না প্রধানমন্ত্রী। করোনা মোকাবিলায় সতর্ক ও সুরক্ষিত থাকতে হবে অবশ্যই, কিন্তু একদিনের জনতা কারফিউ এবং তালি বাজিয়ে সমস্যার সমাধান কি সম্ভব?’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here