ডেস্ক: কথায় আছে লক্ষ্য যদি স্থির হয় তাহলে সবকিছুই সম্ভব হয়। এই কথাটি প্রমান করলো উত্তরপ্রদেশের একটি ছোট্ট গ্রামের বাসিন্দা ১৭ বছর বয়সি সুদিক্ষা ভাটি। সুদিক্ষার বাবা একজন চা বিক্রেতা। এদিন বাড়িতে খবর আসে যে, সুদিক্ষা আমেরিকার একটি নামি কলেজে পড়ার জন্য ৩ কোটি টাকার স্কলারশিপ পেয়েছে।

সুদিক্ষা দাদরির মানিকপুর গ্রামে থাকে। এখানেই তাঁর বাবা একটি ছোট্ট চায়ের দোকান চালায়। তাঁদের আর্থিক অবস্থাও খুব একটা ভালো নয়। এরজন্য ২০০৯ সালে তাকে স্কুল ছাড়ার মতও পরিস্থিতি চলে আসে কিন্তু সময়ের কাছে সে হার মানেনি এবং নিজের লক্ষ্যের দিকে এগিয়ে গেছে।তাঁর এই কঠিন তপস্যার ফলস্বরূপই এই স্কলারশিপ পাওয়া। সে এবার আগামী চারবছর অবধি আমেরিকার নামি ব্যবসান কলেজে পড়াশোনা করবে। তাঁর এই পড়াশোনার খরচ একটি সংস্থা ওঠাবে বলে খবর পাওয়া গেছে। সুদিক্ষা এখন ভিসার পাওয়ার অপেক্ষায় বসে আছে।

সিবিএসই বোর্ডের দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্রী সুদিক্ষা পুরো বুন্দেলশহর জেলার মধ্যে থেকে ৯৮% নম্বর পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে। সে তাঁর প্রাথমিক শিক্ষা পেয়েছে গ্রামেরই একটি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে। পড়ে সে ২০১১ সালে বিদ্যাজ্ঞান বিদ্যালয়তে ভর্তি হয় এবং সেখানেই ক্লাস ১২ অবধি বিনা খরচায় পড়াশোনা করে। এই বিদ্যালয় আর্থিক দিক থেকে যেসব ছাত্রছাত্রীরা স্বচ্ছল নয় তাঁদের সাহায্য করে। এখানেই সুদিক্ষার প্রতিভার পরিচয় পাওয়া যায়। এখানে সুদিক্ষা ছাড়াও তিনজন আরও ছাত্ররা এই সংস্থার দ্বারা স্কলারশিপ পেয়েছে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here