ডেস্ক: নিজের স্কুলের নাম সর্বোচ্চ স্থানে রাখতে গিয়ে মাধ্যমিকের প্রশ্নপত্র ফাঁস করার অভিযোগ উঠেছিল ময়নাগুড়ি সুভাষনগর হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক সহ আরো ৪জনের বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক হরিদয়াল রায় সময়ের আগেই নিয়ম ভেঙে প্রশ্নপত্রের সিল খোলায় তাঁকে সাসপেন্ড করল রাজ্য শিক্ষা দপ্তর।

উল্লেখ্য, মাধ্যমিকের গণিত পরীক্ষার দিন সময়ের আগেই প্রশ্নপত্রের প্যাকেট খোলার অভিযোগ ওঠে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে। সংবাদ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে প্রশ্নপত্র ফাঁসের সেই ভিডিও। মেধা তালিকায় নিজের স্কুলের নাম সবার প্রথমে রাখতে বিভিন্ন বিশেষজ্ঞদের দিয়ে প্রশ্নপত্র সমাধান করিয়ে স্কুলের ফার্স্টবয়ের কাছে পাঠিয়ে দিতেন বলে জানা যায়। তদন্তে উঠে আসে, পরীক্ষার দিন তাঁর নির্দেশেই প্রশ্নপত্রের প্যাকেট খোলা হয়েছিল এবং তখন সেখানে মোবাইল ফোনও ছিল তাদের সঙ্গে।

বলাই বাহুল্ল্য এই ঘটনায় সারা রাজ্য জুড়ে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। সাসপেন্ড করার পাশাপাশি দোষ প্রমাণিত হলে উপযুক্ত শাস্তি পেতে হবে, এমনকি হরিদয়াল রায়ের শিক্ষারত্ন কেড়ে নেওয়া হবে বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। হরিদয়ালবাবু এই কাজের জন্য ক্ষমা চাইলেও তাঁকে ছেড়ে কথা বলার মেজাজে নেই রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here