kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, ধূপগুড়ি: ঘুড়ি ওড়াতে গিয়ে গোখরোর ছোবলে জখম হল এক কিশোর। সাপের কামার খাওয়ার পর দৌড়ে গিয়ে বাড়িতে জানাতেই এলাকার লোকজন সেখানে গিয়ে ধরে ফেলেন বিষাক্ত সাপটিকে। ওই কিশোরকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি বাক্সবন্দি করে রাখা হয় গোখরো সাপটিকে।

জানা গিয়েছে, ১৪ বছরের কিশোর তাপস রায় শনিবার বিকেলে ধূপগুড়ির ২নম্বর ব্রিজ সংলগ্ন ১৫ নম্বর ওয়ার্ডে বাড়ির পাশে মাঠে ঘুড়ি ওড়াতে যায়। সেই সময় হঠাৎই তার পায়ে কিছু  কামড়েছে বলে অনুভূত হয় তার। ঘুড়ির থেকে নজর সরিয়ে পায়ের দিকে তাকাতেই সে দেখতে পায় প্রায় চার ফুট লম্বা একটি গোখরো সাপ আছে সেখানে। তৎক্ষণাৎ ঘুড়ি ওড়ানো বাদ দিয়ে চিৎকার করতে করতে তাপস বাড়ি চলে আসে।

এরপর পরিবারের লোকজন তড়িঘড়ি তাকে ধূপগুড়ি গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যান। এদিকে এলাকাবাসীরা সাপটির খোঁজ শুরু করেন। তল্লাশি চালাতেই সেখা যায় সাপটিকে। অত্যন্ত সতর্কতার সঙ্গে সাপটিকে ধরে একটি কাঠের বাক্সে আটকে রাখেন এলাকার লোকজন। খবর দেওয়া হয় স্থানীয় বনদফতরে।

সাপের কামড়ে জখম তাপস রায় ধূপগুড়ি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। হাসপাতাল সুত্রে জানানো হয়েছে, পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর  প্রয়োজনে তাকে জলপাইগুড়ি স্থানান্তর করা হতে পারে। এদিকে, ওই কিশোর সাপের কামড় খেয়ে ভয় না পেয়ে যেভাবে ছুটে এসে বাড়িতে জানায় বিষয়টি, তাতে তার মনের জোরের তারিফ করেছে এলাকার লোকজন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here