kolkata news

নিজস্ব প্রতিনিধি : শেষমেশ কট্টরপন্থী দল তেহরিক-ই-লাবায়েক পাকিস্তানকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করল পাক সরকার। লাগাতার অশান্তির জেরে কট্টরপন্থী এই দলকে ইমরান খানের সরকার নিষিদ্ধ করে বলে অভিযোগ। সোমবার থেকে ওই দলের টানা বিক্ষোভের জেরে মৃত্যু হয় সাত জনের। জখম হন ৩০০রও বেশি মানুষ। তার পরেই নিষিদ্ধ করা হয় এই দলটিকে।

সূত্রের খবর, ফরাসি রাষ্ট্রদূতকে দেশ থেকে বহিষ্কারের দাবিতে সোমবার থেকে আন্দোলন শুরু করে পাকিস্তানের এই কট্টরবাদী দলটি। ফরাসি রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কারের কারণ ফ্রান্সের একটি পত্রিকার প্রচ্ছদে হজরত মহম্মদের একটি ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশ করা হয়। তার পরেই আন্দোলন নামেন বিশ্বের বিভিন্ন মুসলিম সংগঠন। আন্দোলন হয় পাকিস্তানেও। পরে ফরাসি রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কারের দাবি তোলে পাকিস্তানের কট্টরপন্থী দলটি। পাক সরকারের প্রধান ইমরান খানের সঙ্গে এনিয়ে চুক্তিও হয়।

ওই দাবিতেই সোমবার থেকে টানা আন্দোলনে নামে তেহরিক-ই-লাবায়েক পাকিস্তানকে। কট্টরপন্থী এই দলটির আন্দোলনের জেরে সাতজনের মৃত্যু হয়। জখম হন ৩০০রও বেশি মানুষ। এর পরেই কট্টরপন্থী ওই দলটিকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করার সিদ্ধান্ত নেয় পাক সরকার। সেই মতো বুধবারই নিষিদ্ধ করে দেওয়া হয় তেহরিক-ই-লাবায়েক পাকিস্তানকে। পাক সরকারের তরফে জানানো হয়, দেশের বিভিন্ন জায়গা থেকে অবরোধকারীদের হঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। বাকিদেরও দু একদিনের মধ্যেও বাকি অবরোধকারীদের সরিয়ে দেওয়া হবে।   

  

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here