মহানগর ডেস্ক: পেট্রোল ডিজেলের লাগামছাড়া মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদ জানাতে গতকাল ইলেকট্রিক স্কুটি চেপে নবান্নে যান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আজ ভারত বনধকে সমর্থন করে প্রতিবাদ বিক্ষোভ শামিল কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারী। পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধির জেরে অভিনব প্রতিবাদ শামিল হলেন আরজেডি নেতা তেজস্বী যাদব, কংগ্রেস নেতা শশী তারুর সহ একাধিক বিরোধী নেতা মন্ত্রীরা।

পেট্রোপণ্যের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধি, জিএসটি ব্যবস্থার পুনর্বিবেচনা সহ একাধিক দাবিকে সামনে রেখে আজ ভারত বনধের ডাক দিয়েছে কনফেডারেশন অফ অল ইন্ডিয়া ট্রেডার্স। প্রায় ৪০হাজার ব্যবসায়িক সংগঠন ছাড়াও একাধিক কৃষক সংগঠনও এই ধর্মঘটকে সমর্থন জানিয়েছে। এদিন পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে রাস্তায় সাইকেল চালাতে দেখা যায় আরজেডি নেতা তেজস্বী যাদবকে। কংগ্রেস সাংসদ শশী তারুরকে তার অনুগামীদের সঙ্গে অটোর সামনে দড়ি বেঁধে টানতে দেখা যায়।

পেট্রোল ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে এদিন প্রতিবাদে নামেন জম্মু ও কাশ্মীরের মানুষ। পশ্চিমবঙ্গে বনধের মিশ্র প্রভাব পড়লেও বনধের ব্যাপক সাড়া দেখা যায় শিবসেনা শাসিত মহারাষ্ট্রে। মহারাষ্ট্রে শিবসেনা সমর্থকদের স্কুটি পুড়িয়ে পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদ জানাতে দেখা যায় এদিন।

 

অন্যদিকে জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধির পাশাপাশি ব্যবসায়ী সংগঠনগুলি সরব হয়েছে জিএসটি নিয়েও। কনফেডারেশন অফ অল ইন্ডিয়া ট্রেডার্সের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে ‘জিএসটি একটি অত্যন্ত জটিল কর ব্যবস্থা হওয়ায় প্রবল সমস্যার মুখে পড়েছে ব্যবসায়ীরা। জিএসটির বিষয়ে একাধিকবার সমস্যা সমাধানের আবেদন করা হলেও সাড়া দেয়নি কেন্দ্র।’ সেকারণেই ধর্মঘটের পথকেই বেছে নিতে বাধ্য হয়েছে তারা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here