kolkata news

Highlights

  • বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সাময়িক ভাবে বরখাস্ত করেছিল
  • আর তার জেরে বিদ্যালয়ের হস্টেল ছেড়ে বেরিয়ে গেল দশম শ্রেণির ৩৫জন ছাত্র
  • পরে ওই ৩৫জন ছাত্র পুরুলিয়া শহরের বাজারে বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে বেড়াতে থাকে

নিজস্ব প্রতিনিধি, পুরুলিয়া: বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সাময়িক ভাবে বরখাস্ত করেছিল। আর তার জেরে বিদ্যালয়ের হস্টেল ছেড়ে বেরিয়ে গেল দশম শ্রেণির ৩৫জন ছাত্র। গতকাল গভীর রাতেই হস্টেল ছেড়ে বেরিয়ে যায় তারা। ঘটনাটি ঘটেছে পুরুলিয়া বাগমুণ্ডির কিশোর ভারতী আশ্রম বিদ্যালয়ে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই বিদ্যালয়ের পরিচালন কমিটির এক সদস্য তথা অভিভাবক জানান, দশম শ্রেণির দুই ছাত্রের মদ খাওয়া এবং সেই মদ খাওয়া স্কুল কর্তপক্ষ ধরে ফেলায় দুই ছাত্রকে কয়েকদিনের জন্য সাময়িক বহিষ্কার করে স্কুল কর্তৃপক্ষ। আর এই নির্দেশেই ব্যুমেরাং হয়ে দাঁড়ায়। এই ঘটনার প্রতিবাদ করে স্কুলের ওই দুই ছাত্র-সহ মোট ৩৫ জন গতকাল গভীর রাতে স্কুল থেকে বেরিয়ে যায়। আজ সকালে বাগমুণ্ডি থেকে পুরুলিয়াগামী সরকারি বাসে চড়ে বলরামপুর হয়ে পুরুলিয়া চলে আসে তারা। পরে ওই ৩৫জন ছাত্র পুরুলিয়া শহরের বাজারে বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে বেড়াতে থাকে।

পরে কিশোর ভারতী আশ্রম বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বাগমুণ্ডি থানার পুলিশের সহায়তায় ওই ছাত্রদের পুরুলিয়া থেকে উদ্ধার করে বিদ্যালয় ফিরিয়ে নিয়ে যায়। কিশোর ভারতী আশ্রম বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক বিজয় ঘোষাল জানান, মদ খাওযার কোনও ঘটনা ঘটেনি। হস্টেলের ভেতরে দুই ছাত্র কয়েকজন ছাত্রের সঙ্গে মারামারি করেছিল। সেই জন্য ওই দুই ছাত্রকে সাময়িক বহিষ্কার করে বাড়ি যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়। সেই ঘটনার প্রতিবাদ করে ৩৫জন ছাত্র গতকাল রাতে হস্টেল থেকে বেরিয়ে যায়। আজ আমরা ছাত্রদের পুনরায় হস্টেলে ফিরিয়ে এনেছি। বিষয়টি নিয়ে আগামীকাল জরুরি বৈঠক করার পর বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

কিশোর ভারতী আশ্রম বিদ্যালয় অভিভাবক তথা পরিচালন কমিটির সদস্য কাশীনাথ মাঝি জানান, কিশোর ভারতী আশ্রম বিদ্যালয় বাগমুণ্ডির নামকরা বিদ্যালয়। সেই বিদ্যালয়ে এরকম ঘটনা কীভাবে ঘটল ভেবে অবাক হচ্ছি। শুধু বাগমুণ্ডি বা পুরুলিয়া জেলা নয়, রাজ্যের অন্যান্য জায়গার ও বহু ছেলে এই বিদ্যালয়ের হস্টেলে থেকে পড়াশোনা করে। এই ঘটনার যাতে পুনরাবৃত্তি না ঘটে তা আগামীকালের মিটিংয়ে তুলব। তবে এর আগে কিশোর ভারতী আশ্রম বিদ্যালয়ে ধরনের ঘটনা ঘটেনি।
পুরুলিয়া জেলার প্রান্তিক ব্লক বাগমুণ্ডির গ্রাম্য এবং আশ্রমিক পরিবেশের এই বিদ্যালয়েই তাই ছেলেদের পড়াশোনার আদর্শ জায়গা বলে মনে করেন অভিভাবকরা।

দূর-দূরান্তের অভিভাবকরা তাই নির্দ্বিধায় ছেলেদের কিশোর ভারতী আশ্রম বিদ্যালয় ভর্তি করেন। বেশ কিছুদিন আগে থেকেই এই বিদ্যালয়ের নানান সমস্যার কথা সামনে আসে। তবে বিদ্যালয়ের হস্টেল ছেড়ে রাতারাতি ছাত্রদের বেরিয়ে যাওয়ার ঘটনা এই প্রথম। যার জেরে সিঁদুরে মেঘ দেখছেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক থেকে পরিচালন কমিটি এবং অভিভাবকরা। বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে, ঢিলেঢালা নিরাপত্তার জন্য এই ঘটনা ঘটল। ওই ৩৫জন ছাত্রের কোনও বড় দুর্ঘটনা ঘটে গেলে তার দায় কে নিত? এই প্রশ্নের উত্তর দিতে পারেননি প্রধান শিক্ষক থেকে হস্টেল কর্তৃপক্ষ কেউই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here