kolkata news

নিজস্ব প্রতিনিধি, বসিরহাট: ইতিমধ্যে রাজ্যজুড়ে থাবা বসিয়েছে ডেঙ্গি, স্ক্রাব টাইফাস, জাপানি বি এনসেফালাইটিস। আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। মৃত্যু হয়েছে বেশ কয়েকজনের। ইতিমধ্যে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় স্বাস্থ্য দফতরকে কড়া নির্দেশ দিয়েছেন যাতে চিকিৎসার কোনও গাফিলতি না হয়। আগেই উদ্যোগ নিয়েছিল বসিরহাট স্বাস্থ্য জেলা। এরপর সেই উদ্যোগ আরও একধাপ এগিয়ে গেল। গ্রামে তৈরি হল অস্থায়ী মিনি হাসপাতাল।

বসিরহাট মহকুমার বসিরহাট ২ নম্বর ব্লকের খোলাপোতা গ্রাম পঞ্চায়েত ময়নালি গ্রামে স্বাস্থ্যকর্মীরা রীতিমতো ক্যাম্প তৈরি করে জাপানি বি এনসেফালাইটিস ডেঙ্গি স্কাব টাইফাস সম্পূর্ণ সরকারি ভাবে বিনামূল্যে এই প্রতিষেধকগুলো দেওয়া হচ্ছে। এমনকী বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রতিটা ঘরে তাদের একদিকে যেমন সচেতন করা হচ্ছে, অন্যদিকে এই টিকাগুলো দেওয়া হচ্ছে। সব মিলিয়ে স্বাস্থ্য দফতর যে নড়েচড়ে বসেছে তা বলাই যায়। শীত যতদিন না পর্যন্ত পুরোপুরি না পড়বে, ততদিন তাদের এই কর্মসূচি লাগাতার চলবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যকর্মীরা।

খোলাপোতা গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান অপরেশ মুখার্জী বলেন, আমাদের কাছে সবচেয়ে চ্যালেঞ্জের দ্রুত এই রোগগুলো থেকে মানুষকে সচেতন করা। তাই লাগাতার এই কর্মসূচি চলবে। পঞ্চায়েতের স্বাস্থ্যকর্মীরা প্রতিদিন এক একটা গ্রামকে বেছে নিয়ে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে সরকারি স্বাস্থ্য দফতরের উদ্যোগে এই প্রতিষেধক দিচ্ছেন। যাতে মানুষের মধ্যে আতঙ্কের পরিবেশ না তৈরি হয়। বসিরহাট স্বাস্থ্য জেলা হাসপাতাল সুপার শ্যামল হালদার জানিয়েছেন, দ্রুত তাপমাত্রা কমে গেলে এই রোগগুলো থেকে মানুষ খুব তাড়াতাড়ি মুক্তি পাবে। আমরা সেটা যেমন একদিকে মাথায় রেখেছি, অন্যদিকে মহকুমার বিভিন্ন গ্রামগুলোকে বেছে নিয়ে এই প্রতিষেধক বিনামূল্যে দেওয়ার সবরকম ব্যবস্থা করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here