ডেস্ক: দক্ষিণের জেলাগুলিকে ছাড়িয়ে ট্যারেন্টুলার আতঙ্ক এবার হানা দিল উত্তরে। বুধবার সকালে ট্যারেন্টুলার আতঙ্ক ছাড়াল জলপাইগুড়ির ফালাকাটায়। সেখানকার পারঙ্গেরপার অঞ্চলের দুই মাইল কাঠমিল ফালাকাটা রেল স্টেশন সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দা অমর সরকারের বাড়িতে পাওয়া যায় মাকড়সাটি। মাকড়সাটিকে দেখতে সকাল থেকেই ভিড় জমাতে শুরু করেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

জানা গিয়েছে, বুধবার বাড়ির ঠিক সামনে মাকড়সাটিকে দেখতে পান অমরবাবুর বাবু। এরপর বহুকষ্টে মাকড়সাটিকে একটি পাত্রে আটকে রেখে সকলকে খবর দেন তিনি। ঘটনার জেরে ব্যাপক আতঙ্ক ছড়িয়েছে ওই এলাকায়। অমরবাবুর বাবুর কথায়, ‘ঘটনার সময় আমি বাড়িতে টিভি দেখছিলাম। সেসময় টিভিতে কালো মাকড়সা ট্যারেন্টুলার খবর পরিবেশিত হচ্ছিল। সেসময় বাইরে উঠোনে বাড়ির কুকুর জোরে জোরে ডাকছিল। কুকুরের ডাক শুনে বাইরে বেরিয়ে এসে দেখি টিভিতে যে কালো মাকড়সা ট্যারেন্টুলার ছবি দেখাছিল ঠিক সেরকমই দেখতে এই কালো মাকড়সা। সাধারণ মাকড়সার চেয়ে অনেকটা বড়, এর গায়ে লোমও রয়েছে, এটি খুব দ্রুত চলাফেরা করে। আমরা আতঙ্কে আছি বাড়িতে বয়স্ক ও শিশু রয়েছে।’

এই মাকড়সা প্রসঙ্গে দেওগাঁও উচ্চ বিদ্যালয়ের জীববিজ্ঞান শিক্ষক আশিষ মন্ডল বলেন, ছবি দেখে ট্যারেন্টুলা মনে হচ্ছে, তবে চোখে না দেখে সঠিকভাবে বলা সম্ভব নয় যে এটি ট্যারেন্টুলা কিনা। তবে ট্যারেন্টুলা বিষাক্ত এর থেকে দূরে থাকাই ভালো। এর কামড়ে মৃত্যুর সম্ভাবনা না থাকলেও শরীরের ক্ষতি হবে। %A