news bengali

মহানগর ওয়েবডেস্ক: কদিন আগে কোনরকমে প্রাণে বেঁচে গিয়েছিল সে। কিন্তু এবার আর কোনও সুযোগ দেননি ভারতীয় জওয়ানরা। নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে ঝাঁজরা হয়ে গেল জঙ্গি জাহিদ দাসের দেহ। গত সপ্তাহে অনন্তনাগে সেনাবাহিনীর ওপর হামলা চালায় কিছু জঙ্গি। তাতে মৃত্যু হয় এক বালকের। এই জাহিদ দাসই সেই বালক হত্যার জন্য দায়ী।

গত মঙ্গলবার ওয়াঘামা গ্রামে জাহিদ সহ আরও দুই জঙ্গি লুকিয়ে থাকার খবর পান জওয়ানরা। এরপরেই স্থানীয় পুলিশ ও সেনা জওয়ানরা ওই গ্রামে তল্লাশি অভিযানে যান। সেখানে দুই পক্ষর মধ্যে গুলির লড়াই শুরু হয়ে যায়। ভারতীয় জওয়ানরা দীর্ঘ লড়াইয়ের পর দুই জঙ্গিকে নিকেশ করতে সক্ষম হয়। কিন্তু কোনওরকমে পালাতে সক্ষম হয় জাহিদ।

অন্যদিকে, বৃহস্পতিবার গভীর রাতে ভারতীয় নিরাপত্তা বাহিনী ও জঙ্গিদের মধ্যে গুলির লড়াই শুরু হয় শ্রীনগরের কাছে মালবাগ এলাকায়। ঘটনায় শহিদ হন এক সিআরপিএফ জওয়ান। পাল্টা এক জঙ্গিকে খতম করে ভারতীয় সেনা। এই নিয়ে গত ৪৫ দিনে শ্রীনগরে এটি তৃতীয় এনকাউন্টার।

স্থানীয় পুলিশ সূত্রে খবর, ওই এলাকায় একটি গ্রামে কিছু জঙ্গি লুকিয়ে আছে বলে গোপন সূত্রে খবর পায় পুলিশ। এরপরেই শ্রীনগর পুলিশ ও সিআরপিএফ জওয়ানরা যৌথ অভিযান শুরু করেন। এলাকায় কর্ডন এন্ড সার্চ অভিযান চলার সময় আচমকাই এলোপাতাড়ি গুলি ছুড়তে শুরু করে জঙ্গিরা। তাতেই এক সিআরপিএফ জওয়ান শহিদ হন। পাল্টা জবাব দেন নিরাপত্তা বাহিনীর জওয়ানরাও। দীর্ঘক্ষণ গুলির লড়াইয়ের পর এক জঙ্গিকে খতম করা হয়। প্রথমে জঙ্গির পরিচয় জানা না গেলেও পরে কাশ্মীর জোন পুলিশ ট্যুইট করে জানায়, জাহিদ দাসকেই অবশেষে খতম করতে সক্ষম হয়েছেন জওয়ানরা।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here