পাশে আমেরিকা

মহানগর ডেস্ক: বাইডেন প্রেসিডেন্ট হওয়ার পরেই চাপ বাড়ল রাশিয়ার ওপর। রাশিয়ার বিরোধী নেতা নাভালনির ওপর রুশ প্রশাসন বিষ প্রয়োগ করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। তার জেরে রাশিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করল বাইডেন প্রশাসন।

মঙ্গলবার মার্কিন বিদেশ সচিব অ্যান্টনি ব্লিংকেন জানিয়েছেন, রাশিয়ার বিরোধী নেতা অ্যালেক্সেই নাভালনিকে নার্ভ এজেন্ট প্রয়োগ করে হত্যার চেষ্টা করেছিল রুশ প্রশাসন। রুশ প্রশাসনের বিরুদ্ধে বিরোধীদের নার্ভ এজেন্ট প্রয়োগ করে হত্যার চেষ্টার একাধিক অভিযোগ আছে। জানা গিয়েছে, বাইডেন প্রশাসন রাশিয়ার সাত উচ্চপদস্থ সরকারি আধিকারিকের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট ও সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করছে। পাশাপাশি, রাশিয়ার জৈবিক ও রাসায়নিক অস্ত্র তৈরি করে এমন ১৩টি সংস্থার ওপর মার্কিন প্রশাসন নিষেধাজ্ঞা জারি করছে।

জানা যায়, ২০ অগস্ট সাইবেরিয়া থেকে মস্কো ফেরার সময় বিমানে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন নাভালনি। সেই সময় ওমস্ক শহরে জরুরি অবতরণ করানো হয় বিমানের। তাঁকে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে চিকিৎসার জন্য তাঁকে জার্মানিতে নিয়ে যাওয়া হয়। সেই সময় নাভালনি কোমায় চলে যান। জার্মানির চিকিৎসকরা জানান, নাভালনিকে নার্ভ এজেন্ট প্রয়োগ করা হয়েছিল। ধীরে ধীরে নাভালনি সুস্থ হয়ে ওঠেন। রাশিয়াতে ফিরলে তাঁকে গ্রেফতার করা হতে পারে জেনেও তিনি মস্কোতে ফিরে আসেন। মস্কোতে ফিরে আসার সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে গ্রেফতার করে রুশ প্রশাসন। নাভালনির মুক্তির দাবিতে রাশিয়ার বিভিন্ন জায়গায় বিক্ষোভ চলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here