kolkata bengali news

মহানগর ডেস্ক:  ব্রিটেনের ছন্দ কাটছে ভারতের করোনার নতুন প্রজাতি। ব্রিটেনে ভারতের নতুন প্রজাতিতে সংক্রমণের সংখ্যা বাড়তে দেখা গিয়েছে। এই নয়া প্রজাতির বৈশিষ্ট্যই হচ্ছে দ্রুত ছড়িয়ে পড়া। এই পরিস্থিতিতে ব্রিটেনে করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আনতে দুটো ডোজের মধ্যে ব্যাবধান কমাল ব্রিটেন সরকার। ৫০ ঊর্ধ্বদের করোনা টিকার দুটো ডোজের মধ্যে ব্যবধান কমানো হল বলে জানা গিয়েছে।

সাংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন জানিয়েছেন, করোনার B1.617.2 ভ্যারিয়েন্ট অত্যন্ত দ্রুত গতিতে ছড়িয়ে পড়ছে। এর ফলে দেশে ফের বিপর্যয় নেমে আসতে পারে। তা নিয়ন্ত্রণ করতে জনসন সরকার গণটিকার ওপর জোর দিয়েছে।সেই কারণে ৫০ ঊর্ধ্বদের করোনা টিকার দুটো ডোজের মধ্যে ব্যবধান কমানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। জানা গিয়েছে, ব্রিটেনে আগে দুটো ডোজের মধ্যে ব্যবধান ১২ সপ্তাহ ছিল। তা কমিয়ে আট সপ্তাহ আনা হয়েছে।

ব্রিটেনে করোনা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হয়েছে। করোনা সংক্রমণ মোটামুটি নিয়ন্ত্রণে। পাশাপাশি গণহারে টিকাকরণের যে লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছিল, তাও পূরণ হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে জুন মাস থেকে লকডাউন তুলে দেওয়ার পরিকল্পনা করছিল ব্রিটেন সরকার। কিন্তু তাতেই বাধ সেধেছে B1.617.2 ভ্যারিয়েন্ট। লকডাউন আদৌ তোলা হবে কি না, সেই নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে ব্রিটেনে। করোনায় জেরবার হয়ে উঠেছিল ব্রিটেন। তবে বর্তমানে আস্তে আস্তে ছন্দে ফিরতে শুরু করেছে ব্রিটেনে। তারমধ্যে ভারতের করোনার নতুন প্রজাতি নতুন করে ব্রিটেনে চোখ রাঙাতে পারে বলে আতঙ্কে জনসন সরকার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here