usha thakur

মহানগর ডেস্ক:   করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে দেশের পরিস্থিতি ক্রমেই খারাপ হচ্ছে। কোথাও বেড নেই তো, কোথাও অক্সিজেন নেই। এই পরিস্থিতি বার বার কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়েছে, দেশে করোনার তৃতীয় ঢেউ অনিবার্য। সেই নিয়ে দেশবাসীর মনের মধ্যে আতঙ্ক নেহাত কম নেই। পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে পারে বলে চিকিৎসকরা আশঙ্কা প্রকাশ করছেন। এই পরিস্থিতিতে করোনার তৃতীয় ঢেউ সামলাতে নয়া নিদান দিলেন মধ্যপ্রদেশের সংস্কৃতি মন্ত্রী ঊষা ঠাকুর। তিনি করোনা মোকাবিলায় চার দিনের যজ্ঞ করার পরামর্শ দিয়েছেন। এই যজ্ঞের ফলে করোনার তৃতীয় ঢেউ ভারতে প্রবেশ করতেই পারবে না। ঊষা ঠাকুরের এই মন্তব্য ঘিরে ইতিমধ্যে বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে।

মধ্যপ্রদেশের মন্ত্রী ঊষা ঠাকুর বলেছেন, পরিবেশ বিশুদ্ধ করতে চারিদিকে যজ্ঞ করুন। এটাকে বলা যেতে পারে ‘যজ্ঞ চিকিৎসা’। তিনি আরও বলেছেন, ‘আমাদের দেশে এই যজ্ঞ চিকিৎসা নতুন নয়। আমাদের পূর্ব পুরুষরা দেশে মহামারী রোধ করতে যজ্ঞ করতেন। চলুন আমরা পরিবেশকে বিশুদ্ধ করি। সেক্ষেত্রে করোনার ঢেউ ভারতকে স্পর্শ করতে পারবে না।’

মধ্যপ্রদেশের ইন্দোরে একটি কোভিড কেয়ার সেন্টার উদ্বোধন করতে গিয়ে বলেন, বিশেষজ্ঞরা বলছেন করোনার এই তৃতীয় ঢেউয়ে সব থেকে বেশু ক্ষতিগ্রস্থ হবে শিশুরা। করোনার এই তৃতীয় ঢেউ রুখতে মধ্যপ্রদেশ সরকার সব রকমভাবে প্রস্তুত আছে বলেও তিনি রাজ্যবাসীকে আশ্বাস দেন। মধ্যপ্রদেশের মন্ত্রী ঊষা ঠাকুর একাধিকবার বিতর্কিত মন্তব্য ও পদক্ষেপের জন্য সংবাদের শিরোনামে এসেছেন।

করোনার প্রথম ঢেউয়ের সময় তিনি ইন্দোরের বিমান বন্দরের কাছে একটি মূর্তির পুজো করেন। তিনি সেই সময় দাবি করেছেন, এই পুজোর মাধ্যমে করোনা দূর হয়ে যাবে। আবার সম্প্রতি মাস্ক ছাড়া তিনি কোভিড কেয়ার সেন্টার পরিদর্শনের জন্য বিতর্কে জড়িয়ে ছিলেন। প্রসঙ্গত, দেশের অন্যান্য রাজ্যের পাশাপাশি মধ্যপ্রদেশের করোনা পরিস্থিতি মোটেই ভালো নয়। তবে টানা কারফিউয়ের জেরে সংক্রমণ কিছুটা কমেছে। মধ্যপ্রদেশের স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন ৯ হাজার ৭৫৪ জন আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে ৯৪ জনের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here