news kolkata

নিজস্ব প্রতিনিধি: গত বছরের তুলনায় এবারে করোনা সংক্রমণ ভয়াবহ আকারে বেড়েছে। দেশে দৈনিক করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দুই লক্ষ ছাড়িয়ে গিয়েছে। রাজ্যে দৈনিক করোনা আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় সাত হাজার। করোনার এই ভয়াবহ পরিস্থিতি সামাল দিতে, রাজ্যের পুর ও নগর উন্নয়ন দফতর সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে সেফ হোম এবং কোয়ারেন্টিন কেন্দ্রের সংখ্যা গত বছরের তুলনায় এবছর বাড়ানো হবে। সূত্রের দাবি গত বছরের তুলনায়, এবছর কোয়ারেন্টাইন, সেভ হোমের সংখ্যা ২০ শতাংশ বাড়ানো হতে পারে।

ইতিমধ্যেই দেখা যাচ্ছে যে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা হাসপাতালে বেড়ে চলেছে। কিছু ক্ষেত্রে অনেকে আতঙ্কিত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছেন। বৃহস্পতিবারের স্বাস্থ্য দপ্তরের পরিসংখ্যানের দিকে দেখলে বর্তমানে মোট সেফ হোম ২০০, সেফ হোমে মোট বেডের সংখ্যা ১১৫০৭, এবং তাতে রোগীর সংখ্যা ৪৬। অন্যদিকে বর্তমানে হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন ৯৮৩৯ জন।

উল্লেখ্য রাজ্যের গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে সংক্রমিত ৬ হাজার ৭৬৯ জন। একদিনে সুস্থ ২ হাজার ৩৮৭। ২৪ ঘন্টায় করোনার বলি ২২ জন। ওয়াকিবহাল মহলের বক্তব্য যেভাবে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে তাতে সেফ হোম বা কোয়ারেন্টিন কেন্দ্রের সংখ্যা না বাড়ানো ছাড়া কোনও উপায় নেই। রাজ্যে করোনা আক্রান্তের পাশাপাশি বাড়ছে অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা রাজ্যে মোট অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা ৩৬ হাজার ৯৮১ জন। অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা হু হু করে বেড়ে যাচ্ছে। মঙ্গলবারে অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা ২,৫১৯ জন। বেড়েছিল। বৃহস্পতি অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা বাড়ল ৪,৩৬০ জন।

রাজ্যের পাশাপাশি দেশে করোনা সংক্রমণ ভয়বহ আকার ধারণ করেছে। দেশে দৈনিক করোনা সংক্রমণ ২ লক্ষ ছাড়িয়ে গিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে টিকা করণের ওপর জোর দেওয়া হয়েছে। তবে রাজ্যে বেশ কয়েক জায়গায় টিকার ঘাটতি পাওয়া গিয়েছে। পরিস্থিতি সামাল নিতে নতুন করে পাঁচ লক্ষ কোভিশিল্ডের ডোজ পাঠানো হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here