ডেস্ক: বছরের পর বছর ফাইলে ধুলো জমে ‘পেন্ডিং’ অবস্থায় আদালতের দ্বারে পড়ে রয়েছে কয়েক হাজারের উপর মামলা। এই চিরাচরিত প্রথার নিস্পত্তি করতে এবার নতুন পদক্ষেপ গ্রহণ করল দেশের শীর্ষ আদালত। এবার থেকে কোনও মামলার শুনানিতে ৬ মাসের বেশি স্থগিতাদেশ দেওয়া যাবে না বলে জানিয়ে দিল সুপ্রিম কোর্ট।

ফৌজদারী ও বিশেষ করে দুর্নীতি জনিত মামলা গুলির ক্ষেত্রে এই আদেশের উপর কড়াকড়ি জারি করা হয়েছে। দেশের বিভিন্ন প্রান্তের নিম্ন আদালতে মামলার পাহাড় জমে রয়েছে। বেশিরভাগ মামলাই চলে কয়েক মাস ধরে। অনেক ক্ষেত্রেই দেখা যায় বেকসুর খালাস পেয়ে যাচ্ছে অভিযুক্তরা। এরফলে একদিকে যেমন মামলাকারীদের আর্থিক ক্ষতি হয়, সেই সঙ্গে সময়ের অপচয়ও হয়। অনেক সময় প্রমাণও লোপাট হয়ে যায়। এই কারণগুলি মাথায় রেখে বিচার ব্যবস্থায় আরও স্বচ্ছতা আনতে এই নির্দেশ দিয়েছে শীর্ষ আদালত।

সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি এ কে গোয়েল, আর এফ নরিম্যান এবং নবীন সিনহার ডিভিশন বেঞ্চ জানিয়েছে, সমাজে স্বচ্ছতা ফিরিয়ে আনতে ‘ক্যান্সার’-এর মতো দুর্নীতি মামলাগুলির দ্রুত নিস্পতি করা অবিলম্বে দরকার। সেই কারণেই এই গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ এখনই আরোপ করা দরকার। সুপ্রিম কোর্টের এই নির্দেশ বুধবার থেকেই কার্যকর করা হবে বলে জানা গিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here