biden
মার্কিন রাষ্ট্রপতি জো বাইডেন

মহানগর ডেস্ক: বিপুল জনসংখ্যার দেশ ভারত। দেশে টিকা উৎপাদন হলেও টিকার ঘাটতি দেখতে পাওয়া গিয়েছে। এই পরিস্থিতির মধ্যে সুখবর দিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। তিনি জানিয়েছেন, রাষ্ট্রসংঘের কোভ্যাক্সের মাধ্যে ৮ কোটি ভ্যাকসিন ভারতে বিনামূল্যে পাঠানো হবে। পাশাপাশি দক্ষিণ পশ্চিম এশিয়া ও আফ্রিকার দেশগুলোতে টিকা পাঠানোর কথা ভাবছে জো বাইডেন।

তবে কবে এই টিকা ভারতে পৌঁছবে সেই বিষয়ে কোনও স্পষ্ট তথ্য নেই। তবে কোভ্যাক্সের মাধ্যে আমেরিকা ইতিমধ্যে ১ কোটি ১০ লক্ষ ভ্যাকসিন বিশ্বের বিভিন্ন দেশে পাঠিয়েছে। তবে করোনার বিপর্যয়ে বিধ্বস্ত ভারতের পাশে এর আগে আমেরিকা চিকিৎসা সামগ্রী দিয়ে পাশে দাঁড়িয়েছে। আমেরিকার পাশাপাশি একাধিক দেশ সেই সময় ভারতের পাশে দাঁড়ায়।

সেই সময় আমেরিকা অক্সিজেন কনসেনট্রেটরের পাশাপাশি টিকা তৈরির কাঁচামালও ভারতে পাঠিয়েছিল। এবার টিকা করণের ক্ষেত্রেও ভারতের পাশে দাঁড়াতে চায় আমেরিকা। একাধিক সংস্থা ভারতে করোনার টিকা পাঠানোর জন্য আগ্রহ প্রকাশ করেছে। এক্ষেত্রে মার্কিন বিদেশ সচিবের তরফে জানানো হয়েছে, করোনায় বিধ্বস্ত ভারত। এই পরিস্থিতিতে ভারতের পাশে দাঁড়াতে বদ্ধপরিকর আমেরিকা।

অন্য দিকে, ভারত সরকারের তরফে দাবি করা হয়েছে, অগাস্ট থেকে ভারতে টিকা সরবরাহ বাড়বে। যার জেরে ভারতের টিকাকরণ দ্রুত গতিতে সম্পন্ন হবে। কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, আগামী কয়েক মাস যেন টিকা করণ কেন্দ্রগুলোতে ২৪x৭ করোনার টিকা দেওয়া হয়। এই পদ্ধতিতে করোনার টিকা দেওয়া হলেই ৭০ কোটি মানুষকে করোনার টিকা দেওয়ার কাজ সম্পন্ন করা সম্ভব হবে।

বুধবার অর্থমন্ত্রকের তরফে মাসিক অর্থনৈতিক রিপোর্ট প্রকাশ করা হয়েছে। সেই রিপোর্টে জানানো হয়েছে, প্রচুর পরিমাণে করোনার টিকা করণ দেশের অর্থনৈতিক বৃদ্ধিকে তরান্বিত করতে পারে। সেই রিপোর্টে বলা হয়েছে, ২০২১ সালের সেপ্টেম্বরের মধ্যে ৭০ কোটি মানুষ যদি টিকাকরণের আওতায় চলে আসে, সেক্ষেত্রে ১১৩ কোটি করোনা টিকার ডোজ লাগবে। রিপোর্টে জানানো হয়েছে, প্রতিদিন ৯৩ লক্ষ টিকাকরণ করতে হবে সেক্ষেত্রে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here