Parul

মহানগর ডেস্ক: কবে আছড়ে পড়বে করোনার তৃতীয় ঢেউ ? এই নিয়ে একাধিক পূর্বভাসের কথা উঠে এলেও সম্প্রতি এইমস-এর প্রধান ডঃ রণদীপ গুলেরিয়া জানিয়েছেন যে আগামী ৬ থেকে ৮ সপ্তাহের মধ্যে ভারতের বুকে আছড়ে পড়তে পারে করোনার তৃতীয় ঢেউ। যা নিয়ে আশঙ্কার কালো মেঘ দেখতে শুরু করছে রাজ্যগুলি।এরপর থেকে প্রত্যেকটি রাজ্য নিজেদের মতো করে প্রস্তুতি নিতে শুরু করে দিয়েছে। পিছিয়ে নেই উত্তরাখণ্ডও। সম্প্রতি, সে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী পুষ্কর সিং ধামি জানিয়েছে, করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের মোকাবিলার জন্য প্রস্তুত উত্তরাখণ্ড।

ads

দেশের সমস্ত পরিস্থিতি এবং প্রস্তুতি পর্যালোচনা করে উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, ‘রাজ্যে পর্যাপ্ত পরিমাণে অক্সিজেন, আইসিইউ ও ভেন্টিলেশনের ব্যবস্থা রাখা হচ্ছে। এছাড়াও সমস্ত জেলা হাসপাতালগুলিতে সিএসসি এবং পিএইচসি পৃথক প্যাট্রিয়টিক রাখা হচ্ছে।‘ তাঁর মতে, ‘রাজ্যের সমস্ত প্রস্তুতি সঠিক সময় মত হলে জুলাইয়ের মধ্যেই তৃতীয় ঢেউ থেকে প্রতিরোধ করার সমস্ত ব্যবস্থা নিয়ে নিতে পারবে উত্তরাখান্ড।‘ তিনি আরও জানিয়েছেন, ‘রাজ্যে সর্বাধিক ভ্যাকসিন এবং করোনার পরীক্ষা ব্যবস্থা গড়ে তোলা হচ্ছে।‘

পুষ্কর সিং ধামি ইতিমধ্যেই প্রধানমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ জানিয়েছিলেন যে, করোনা চিকিৎসায় প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম এবং সেগুলি রক্ষণাবেক্ষণের জন্য বেশ কিছু জিনিসপত্রের প্রয়োজন। সেগুলো যদি পিএম কেয়ার ফান্ড এবং কর্পোরেট সোশ্যাল রেসপনসিবিলিটি পক্ষ থেকে দেওয়া হয় তাহলে অনেকটা সুবিধা হয় রাজ্যের। করোনার তৃতীয় ঢেউ প্রতিরোধের জন্য উত্তরাখণ্ডের স্বাস্থ্যসচিব অমিত নেগি জানিয়েছেন, ‘রাজ্যে এখনও পর্যাপ্ত পরিমাণে রয়েছে অক্সিজেন। এছাড়াও টিকা প্রদানের ক্ষেত্রে দেশের পঞ্চম স্থানে রয়েছে উত্তরাখণ্ড’। এছাড়াও জানানো হয়েছে যে করোনা মোকাবিলায় চিকিৎসক ছাড়াও ইতিমধ্যে উত্তরাখণ্ডে প্যারামেডিকদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে করোনার সঙ্গে লড়াইয়ের জন্য।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here