Home Featured করোনার না হয় ভ্যাকসিন আছে, বিজেপির দুর্নীতি বিরুদ্ধে প্রতিষেধক কোথায়? তোপ সিদ্দারামাইয়ার

করোনার না হয় ভ্যাকসিন আছে, বিজেপির দুর্নীতি বিরুদ্ধে প্রতিষেধক কোথায়? তোপ সিদ্দারামাইয়ার

0
করোনার না হয় ভ্যাকসিন আছে, বিজেপির দুর্নীতি বিরুদ্ধে প্রতিষেধক কোথায়? তোপ সিদ্দারামাইয়ার
Parul

মহানগর ডেস্ক: দেশ জুড়ে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ যেভাবে আছড়ে পড়ছে, তাতে বাদ যায়নি কর্ণাটকও। মহারাষ্ট্র, কেরল, পাঞ্জাবের পাশাপাশি কর্ণাটকেও করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাচ্ছে ক্রমশই। এবার করোনা সংক্রমণ নিয়ে বিজেপি চালিত কর্ণাটক সরকারকে কার্যত তুলধনা করলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা সিদ্দারামাইয়া। দেশ জুড়ে করোনা সংক্রমণ প্রসঙ্গে পরপর কয়েকটি টুইট করে সংক্রমণ বৃদ্ধির জন্য সরকারি অব্যবস্থাপনাকেই দায়ী করলেন তিনি।

এদিন প্রথম টুইটটি করে তিনি লেখেন, ‘করোনা সংক্রমণ ভাববে বৃদ্ধি পাচ্ছে তাতে সরকারি অব্যবস্থাপনা আরও বেশি করে প্রকট হচ্ছে।’ এরপরেই তিনি কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী বিএস ইয়েদুরাপ্পাকে প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়ে বলেন, ‘আপনার সরকার কি করোনা রুখতে ঠিক ভাবে কাজ করছে ? যদি সঠিক পদ্ধতিতে কাজ করে তাহলে সংক্রমণ বৃদ্ধি পাচ্ছে কেন ?’ এখানেই থেমে থাকেননি সিদ্দারামাইয়া। তিনি ফের টুইট করে বিস্ফোরক মন্তব্য করেন। মুখ্যমন্ত্রীর উদ্দেশে প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়ে তিনি বলেন, ‘করোনার কারণে রাজ্যের উন্নয়নের ব্যয় হ্রাস করেছেন। কিন্তু সংক্রমণ বৃদ্ধি নিয়ে সরকার কি সত্যিই চিন্তিত ? চিন্তিত হলে সংক্রমণে লাগাম নেই কেন ?’

এরপরেই কংগ্রেস নেতা সিদ্দারামাইয়া অভিযোগ করেন যে কর্ণাটক সরকার অতিমারীতে ব্যয়ের হিসেব গোপন করছেন। তিনি বলেন, ‘বাজেটে অতিমারীর জন্য যে ৫,৩৭২ কোটি টাকা বরাদ্দ হয়েছিল, তার ব্যয়ের হিসাব সরকার গোপন করছে।’ পাশাপাশি সরকারকে ব্যয়ের পুঙ্খানুপুঙ্খ বিবরণ দেওয়ারও দাবি জানান তিনি। সরকারের বিরুদ্ধে চড়া সুরে তিনি বলেন, ‘করোনার জন্য নাহয় ভ্যাকসিন বেরিয়েছে, কিন্তু বিজেপি সরকারের দুর্নীতির জন্য প্রতিষেধক কোথায় ?’ এরপর কিছুটা সুর নরম করে তিনি বলেন, ‘করোনার প্রথম সংক্রমণ থেকে সরকারের শিক্ষা নেওয়া উচিত। এতগুলো মানুষের জীবন বাঁচানোর জন্য সরকারের উচিত সঠিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা। 

প্রসঙ্গত, করোনার দ্বিতীয় সংক্রমণ যেভাবে শুরু হয়েছে তা উদ্বেগ বাড়াচ্ছে ক্রমশই। গত ২৪ ঘন্টায় দেশে দৈনিক সংক্রমণ ৪০,০০০ এর বেশি। যার মধ্যে শুধুমাত্র মহারাষ্ট্রেই আক্রান্তের সংখ্যা ২৭,০০০ এর কাছাকাছি। করোনা দ্বিতীয় ঢেউ থেকে বাদ যায়নি কর্ণাটকও। এই মুহূর্তে কর্ণাটকে গত ২৪ঘন্টায় দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ১৮০০ এর আশেপাশে। যা নিয়ে চিন্তা প্রকাশ করছেন অনেকেই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here