kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: কেন্দ্রীয় সরকারের এনআরসি-র সিদ্ধান্তের মুখ্য বিরোধী হিসেবে সবচেয়ে আগে নাম আসবে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। প্রথম থেকেই তিনি এই সিদ্ধান্তের প্রলব বিরোধিতা করে এসেছেন। সম্প্রতি দিল্লি গিয়ে প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের পর তিনি রাজ্যবাসীকে এও আশ্বাস দিয়েছেন যে, বাংলায় এনআরসি হবে না। কিন্তু বিজেপি এই মন্তব্যে একমত হতে একেবারেই নারাজ। দিলীপ ঘোষ থেকে মুকুল রায়, সকলেই বাংলাতে এনআরসি হবে বলেই জোর দিয়ে আসছেন। এবার আসরে নামলেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়। তাঁর কথায়, পশ্চিমবঙ্গে ১০০% এনআরসি হবে।

বহু আগে থেকেই যে বিজেপির নিশানায় পশ্চিমবঙ্গ রয়েছে তা আলাদা করে বলার অপেক্ষা রাখে না। আর এনআরসি যে তারা বাংলায় করে দেখাবেই তাও একপ্রকার চ্যালেঞ্জের মতো নিয়েছে গেরুয়া শিবির। সেই প্রেক্ষিতেই কৈলাস বলেছেন,

আগে নাগরিকত্ব বিল আনা হবে, তারপর এনআরসি হবে বাংলাতে। পাকিস্তান ও বাংলাদেশে যে অল্প সংখ্যক হিন্দু রয়েছে, তাঁদের এদেশে স্থান দেওয়া হবে। বাংলায় ক্ষমতায় এসে বিজেপি অনুপ্রবেশকারী দূর করবেই, ১০০% এনআরসি হবে পশ্চিমবঙ্গে।

এর আগে বাংলায় এনআরসি আতঙ্কে পরপর মৃত্যুর সংখ্যা বাড়তে থাকায় নিজের অবস্থান থেকে কিছুটা হলেও পিছিয়ে এসেছিল বিজেপি। দিলীপ ঘোষের বক্তব্য ছিল, বাংলাতে এনআরসি ইস্যু করেনি বিজেপি, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই এর কথা বলে মানুষের মধ্যে আতঙ্ক ছড়াচ্ছেন কারও মৃত্যু হলে দায় তাঁর ওপরই চাপানো উচিত! এই মন্তব্য করে পরিস্থিতি কিছুটা হাতে আনার চেষ্টা করলেও কৈলাসের মন্তব্য আরও জলঘোলা করল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here