kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: খাতায় কলমে সরকার গঠনের তারিখ ৮ নভেম্বর। কিন্তু ৫০:৫০ জটে পড়ে মহারাষ্ট্রে সরকার গঠন আপাতত শিকেয়। শিবসেনার সঙ্গে জোটের সুতো আপাতত গুটিয়ে ফেলেছে কংগ্রেস ও এনসিপি। মারাঠা ভূমে বিরোধী হিসাবেই স্বচ্ছন্দে তারা। পাশাপাশি, খেলা ঘুরিয়ে আপাতত মজা দেখছে বিজেপি। এহেন পরিস্থিতির মাঝেই বিজেপির বিরুদ্ধে তেড়েফুঁড়ে আক্রমণে নামলেন শিবসেনার সাংসদ সঞ্জয় রাউত। গেরুয়া শিবিরের বিরুদ্ধে তাঁর অভিযোগ, বিজেপি চায় রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি হোক।

বৃহস্পতিবার সংবাদ মাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে রাউত বলেন, ‘বর্তমান বিধানসভার মেয়াদ শেষ হচ্ছে ৮ নভেম্বর। হিসেব মতো সরকার গঠন করা উচিত তারও আগে। বিজেপি একক সংখ্যাগরিষ্ঠ না হওয়ায় সরকার গথনে অসমর্থ তারা। অথচ কোনও স্বদিচ্ছাও নেই। এটাই স্পষ্টভাবে প্রমাণ করে বিজেপি এই রাজ্যে জোর করে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করতে চাইছে।’ শুধু তাই নয়, সুর চড়িয়ে তিনি আরও বলেন, ‘এটা মহারাষ্ট্রের মানুষকে অপমান করা হচ্ছে। বিজেপির বলা উচিত তারা সরকার গঠন করতে পারবে না এবং বিরোধী আসনে বসবে। তা না করে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করার রাস্তা তৈরি করছে। ওরা আম্বেদকর ছত্রপতি শিবাজির বিরুদ্ধাচারণ করছে। শুধু তাই নয় চেষ্টা চলছে কেউ যাতে মহারাষ্ট্রে সরকার গঠন না করে। এটা সংবিধান বিরোধী।’

বিধানসভা নির্বাচনী পর্ব সাঙ্গ হওয়ার জল বেশ ঘোলা হয়ে উঠেছে মহারাষ্ট্রে। ২৮৮ আসন বিশিষ্ট মহারাষ্ট্রে বিজেপির ঝুলিতে রয়েছে ১০৫ টি আসন। অথচ সরকার গড়তে প্রয়োজন ১৪৪ টি আসন। এদিকে শিবসেনা পেয়েছে ৫৬। তবে জোট সরকারে শিবসেনার দাবি ৫০:৫০ সমীকরণ। বিজেপি তা দিতে নারাজ। কংগ্রেস ও এনসিপির সঙ্গে জোট বেঁধে শিবসেনা সরকার গড়তে চাইলেও সেখানে এনডিএর এই শরিক দলকে ঠিক ভরসা করে উঠতে পারছে না কংগ্রেস ও এনসিপি। পাশাপাশি দলের অন্দরেও রয়েছে আপত্তি। সব মিলিয়ে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি হওয়া এখন সময়ের অপেক্ষা মহারাষ্ট্রে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here