farmers march
নাসিকের রাস্তায় ব্যানার-পতাকা নিয়ে স্লোগান দিতে দিতে মুম্বইয়ের উদ্দেশে যাত্রা কৃষকদের।
farmers march
নাসিকের রাস্তায় ব্যানার-পতাকা নিয়ে স্লোগান দিতে দিতে মুম্বইয়ের উদ্দেশে যাত্রা কৃষকদের।

মহানগর ডেস্ক: কৃষক আন্দোলনের আঁচ এসে পড়ল এবার মারাঠা রাজ্যেও। নয়া কৃষিবিল প্রত্যাহারের দাবি নিয়ে দিল্লীর আন্দোলনকারী কৃষকদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে ওই রাজ্যের কৃষকরা। কৃষক আন্দোলনের সমর্থনে মুম্বইয়ে জমায়েত হতে রবিবার পদযাত্রা শুরু করেছেন মহারাষ্ট্রের হাজার হাজার কৃষক। সোমবার মুম্বইয়ের আজাদ ময়দানে ৩ কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবিতে ধর্নায় বসবেন তাঁরা। ওই প্রতিবাদে সমর্থন জানিয়েছে ন্যাশনালিস্ট কংগ্রেস পার্টি (এনসিপি), কংগ্রেস, শিবসেনা, বহু জন বঞ্চিত আগাড়ি (ভিবিএ) এবং বাম দলগুলি। সোমবারের ধর্নায় উপস্থিত হতে পারেন এনসিপি নেতা শরদ পওয়ার-সহ বহু কৃষক ইউনিয়নের নেতা।

মুম্বইয়ের দিকে পদযাত্রা শুরু হওয়ার আগে শনিবার মহারাষ্ট্রের ২১টি জেলার প্রায় ১৫ হাজার কৃষক জড়ো হন নাসিকের গল্ফ ক্লাব ময়দানে। সেখান থেকে মুম্বইয়ের আজাদ ময়দানের দিকে পায়ে হেঁটে রওনা দেন তাঁরা।

পদযাত্রার আহ্বায়ক মহারাষ্ট্রের কৃষক ইউনিয়ন সংযুক্ত শ্বেতকারি কামগার মোর্চা (এসএসকেএম)-এর ছাতার তলায় জড়ো হয়েছেন রাজ্যের অসংখ্য কৃষক। কৃষি আইনের বিরুদ্ধে মোর্চার এই প্রতিবাদে শামিল হয়েছে বহু রাজনৈতিক, স্বেচ্ছাসেবী এবং নাগরিক সংগঠনও।

এই প্রতিবাদ নিয়ে মোর্চার আহ্বায়ক অশোক ধনওয়ালে বলেন, “নাসিক থেকে ১৮০ কিলোমিটার পায়ে হেঁটে মুম্বইয়ের আজাদ ময়দানে পৌঁছবেন কৃষকেরা। আজাদ ময়দানে একটি ধর্নার আয়োজন করেছি আমরা। সোমবার ধর্নায় পর রাজভবনে মিছিল করে যাওয়া হবে। ওই প্রতিবাদে শামিল হবেন শরদ পওয়ার, আদিত্য ঠাকরে এবং বালাসাহেব থোরাটের মতো শীর্ষ নেতারা।”

গত ২৬ নভেম্বর থেকে দিল্লির সিংঘু সীমানায় কেন্দ্রীয় সরকারের ৩টি কৃষি আইনের বিরুদ্ধে আন্দোলন চলছে কৃষকদের। এর মধ্যে কৃষক ইউনিয়নের সঙ্গে কেন্দ্রের ১১ দফার বৈঠকও নিষ্ফলা হয়েছে। আন্দোলনের প্রায় দু’মাস পার হলেও ওই আইনগুলি প্রত্যাহারের দাবিতে অনড় কৃষকেরা। ধনওয়ালে বলেন, “আমাদের মূল দাবি হল, ওই তিনটি কৃষি আইন প্রত্যাহার করতে হবে। পাশাপাশি নতুন আইন করে দেশ জুড়ে কৃষকদের ফসলের জন্য ন্যূনতম সহায়ক মূল্য (এমএসপি)-র গ্যারান্টি দিতে হবে সরকারকে। এই দাবিগুলি ছাড়াও বিদ্যুৎ সংশোধনী বিলের বিরুদ্ধেও আমরা আন্দোলনে নেমেছি।” ধনওয়ালে জানিয়েছেন, সোমবার ধর্না-প্রতিবাদের কর্মসূচি শেষ হবে ২৬ জানুয়ারি। প্রজাতন্ত্র দিবসে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করার পরিকল্পনা রয়েছে তাঁদের।

নাসিক থেকে মুম্বইয়ের উদ্দেশে কৃষকদের পদযাত্রা ইতিমধ্যেই শিরোনামে উঠে এসেছে। রবিবার সকাল থেকেই নাসিকের রাস্তায় ব্যানার-পতাকা নিয়ে স্লোগান দিতে দিতে মুম্বইয়ের উদ্দেশে যাত্রা শুরু করেন কৃষকেরা। সেই ছবি ইন্টারনেটে ভাইরাল হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here