kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, পূর্ব মেদিনীপুর: একটা নয়, পরপর তিন তিনটে কুমিরের পাওয়া গেল পূর্ব মেদিনীপুরের বিভিন্ন জায়গায়। প্রথমে খেজুরিতে দুটি কুমির বাচ্চা উদ্ধার হয়। পরে পটাশপুরের খরিগেড়িয়ার কাছে মাছ ধরতে গিয়ে জালে ধরা পড়ে একটি কুমির বাচ্চা। প্রথমে এটিকে গো সাপ ভাবেন স্থানীয় বাসিন্দারা। কিন্তু। পরে দেখা যায় এগুলি গো সাপ বা ঘড়িয়াল নয়, কুমিরের বাচ্চা। কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে, পূর্ব মেদিনীপুরের কোথাও কুমির প্রকল্প নেই বা কুমির চাষ করা হয় না। তা হলে কোথা থেকে এল এই কুমির বাচ্চা?

এই প্রশ্নের উত্তরে পরিবেশবন্ধু সোমনাথ দাস অধিকারী বলেন, লকডাউনে মানুষ ঘরবন্দি হয়ে যাওয়ায় খোলামেলা পরিবেশ পেয়ে কুমির বাচ্চাগুলি সুন্দরবন বা ওড়িশা থেকে পথ ভুল করে মিষ্টি জলে চলে এসেছে। এখন কুমিরটিকে বায়ো ডাইভারসিটি বোর্ডের অনুমতি নিয়ে এগরা কলেজের অধ্যাপক সুদীপ্ত ঘোড়াইয়ের হাতে তুলে দেওয়া হবে। এগরা কলেজে রেখেই কুমিরের বাচ্ছাগুলি কোথা থেকে এসেছে, তা নিয়ে গবেষণা করবেন সুদীপ্তবাবু। যদিও, উৎসাহী মানুষজন জানাচ্ছেন, এই উপকূলে কোথাও নেই তো মা কুমির?

সুন্দরবন ও ওড়িশার বিভিন্ন উপকূল এলাকার নদী ও খাঁড়িতে কুমিরের বাস। সেইসব এলাকায় প্রজননও হয় কুমিরের। কিন্তু পূর্ব মেদিনীপুরের উপকূলবর্তী এলাকায় একেবারে লোকালয়ে কুমিরের বাচ্চা মেলায় অবাক এলাকার লোকজন। কারণ এইসব এলাকায় কুমিরের বাচ্চা বা বড় কুমির থাকার কথা নয়। তাই মনে করা হচ্ছে, সুন্দরবন বা ওড়িশা থেকে ভেসে আসতে পারে কুমিরের বাচ্চাগুলি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here