ডেস্ক: মুসলিম মহিলাদের ক্ষমতায়নের জন্য এক বিরাট পদক্ষেপ নিল কেন্দ্রীয় সরকার৷ তাৎক্ষণিক তিন তালাককে অপরাধ হিসেবে ঘোষণা করার জন্য অর্ডিন্যান্স পাশ করল কেন্দ্রীয় মন্ত্রীসভা৷

২০১৭ সালে তাৎক্ষণিক তিন তালাককে বেআইনি ও অসাংবিধানিক বলে রায় দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট৷ এরপরেও তিন তালাক নিয়ে অভিযোগের হার কম ছিল না এই দেশে৷ গতবছর শীতকালীন অধিবেশনে তালাক-ই-বিদ্দত বা তাৎক্ষণিক তিন তালাককে শাস্তিযোগ্য অপরাধ হিসেবে উল্লেখ করে বিল পাশ করেছিল লোকসভা৷ কিন্তু, রাজ্যসভায় বিলটি আটকে যায়৷ সেই কারণে আইন হিসেবে সেটিকে প্রনয়ণ করা যায় নি৷

তিন তালাক নিয়ে সেই বিলে কি উল্লেখ ছিল? বিলে বলা হয়েছিল, কোনও মুসলিম পুরুষ ‘তালাক’ শব্দটি তিনবার ব্যবহার করে তার স্ত্রীকে ত্যাগ করতে পারবে না৷ এমনকি সোশ্যাল সাইট যেমন ফেসবুক, ওয়াটস্যাপেও তিন তালাক দেওয়া আইনত অপরাধ৷ যদি এমনটা হয় তাহলে সেটি শাস্তিযোগ্য অপরাধ এবং ব্যক্তির তিন বছর পর্যন্ত জেল হতে পারে৷ বিলে আরও বলা হয়েছে, স্ত্রী এবং তার সন্তানকে অস্তিত্বভাতা দিতে হবে৷ শিশুর বয়স কম হলে তার দায়িত্ব মাকেই দেওয়া হবে৷

কেন্দ্রীয় সরকারের এমন পদক্ষেপের পরে দেশের বিভিন্ন জায়গায় অশান্তির আশঙ্কা করা হয়েছিল৷ এই তিন তালাক নিয়ে নরেন্দ্র মোদী সরকারের সঙ্গে বিভিন্ন মুসলিম গোষ্ঠীর সংঘাত শুরু হয়৷ বিরোধীতা শুরু হওয়ায় তিন তালাক নিয়ে বিভিন্ন রাজ্যের মতামতও চেয়েছিল কেন্দ্র৷

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here