ডেস্ক: পুজোর আনন্দ মাটি করে এবার বাংলাতেও আছড়ে পড়তে চলেছে ঘূর্ণিঝড় ‘তিতলি’। আগামী তিন ঘণ্টার মধ্যে তিতলি আছড়ে পড়বে অন্ধ্র উপকূলে। সেখান থেকেই শক্তি হারিয়ে দুর্বল হয় নিম্নচাপে পরিণত হবে। এরপর এই নিম্নচাপই গাঙ্গেও পশ্চিমবঙ্গে ঢুকে পরবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। আর এহেন পরিস্থিতিতে পুজোয় অত্যন্ত প্রব ফেলবে বলে মনে করা হচ্ছে। ফলে এ ব্যপারের পুজো যে প্যাচপ্যাচে কাদায় কাটবে তা বঙ্গবাসী আগেই টের পেয়ে গিয়েছে। বর্তমানে কলকাতা থেকে ৭১১ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছে ঘূর্ণিঝড়টি। জানা যাচ্ছে, ঝড়ের গতিবেগ এখন ১৪০ থেকে ১৫০ কিলোমিটার। এই তিতলির জেরেই আগামী রবিবার পর্যন্ত প্রবল বৃষ্টির সম্ভাবনার কথা বলেছে হাওয়া অফিস। ফলে পুজোয় প্রবল সম্ভাবনা বৃষ্টির।

ভুবনেশ্বর আবহাওয়া অফিসের অধিকর্তা হাবিবুর রহমান বিশ্বাস জানান, উত্তর অন্ধ্রপ্রদেশ-দক্ষিণ ওড়িশা উপকূল পেরিয়ে গিয়েছে তিতলি। শ্রীকাকুলাম, দক্ষিণ-পূর্ব গোপালপুর পার করেছে। তখন হাওয়ার বেগ ছিল ১৪০-১৫০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টায়। এরপর ধীরে ধীরে সাইক্লোনের তীব্রতা কমতে শুরু করেছে। এই তিতলি ঝড় ওড়িশা থেকে আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে বাংলায় ঢুকে যাবে। অন্যদিকে ওড়িশার বিভিন্ন জেলায় লাল সতর্কতা জারি করা হয়েছে এবং ভুবনেশ্বরে বিভিন্ন ট্রেন বাতিল করা হয়েছে। মৎসজীবীদের সমুদ্র যেতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। তবে আবহাওয়াবিদরা জানাচ্ছেন, সপ্তমীর পর আবহাওয়া পরিবর্তন হলেও তিতলি গতিপথ বদলালে ঝঞ্ঝা বাড়বে বাংলার।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here