kolkata bengali news

নিজস্ব প্রতিবেদক, নানুর: ফের রাজনৈতিক সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে উঠল বীরভূম। তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে এখনও উত্তপ্ত নানুর। সংঘর্ষের মাঝে পড়ে গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যু হয়েছে এক গৃহবধূর। পরিস্থিতি সামাল দিতে গ্রামে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

সোমবার সকাল থেকে দফায় দফায় সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে নানুরের হাটসেরান্দি গ্রাম। প্রসঙ্গত, নানুর, বীরভূমের দাপুটে নেতা জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলের গ্রাম। দুপুর যত বাড়তে থাকে সেই সঙ্গে সংঘর্ষও বাড়তে থাকে। দফায় দফায় চলে সবুজ-গেরুয়া সংঘর্ষ। এলাকা দখল নিয়েই সংঘর্ষ বলে স্থানীয়দের দাবি। রয়েছে গুলি চালানোর অভিযোগও। পরিস্থিতি সামাল দিতে বোলপুর থেকে আসে বিশাল পুলিশ বাহিনী।সংঘর্ষের সময় দুই দলের মধ্যে পড়ে এদিন দুপুরে বুকে গুলি লেগে মৃত্যু হয় নিরীহ এক গ্রামবাসীর।ঘটনার পরেই স্থানীয় বাসিন্দারা এসে দেখতে পায় প্রাণহীন রক্তাক্ত দেহ পড়ে রয়েছে। পুলিশ দেহ উদ্ধার করতে এলে স্থানীয়রা বিক্ষোভ দেখিয়ে বাধা দেয়। জানা গিয়েছে, মৃত শঙ্করী বাগদী (৫০) স্থানীয় এক বিজেপি কর্মীর মা। গেরুয়া শিবিরের অভিযোগ, ছেলে বিজেপি কর্মী বলেই তাঁর মাকে দেখে গুলি চালায় তৃণমূল।মৃতার ছেলের দাবি, সে আগে তৃণমূল করত কিন্তু এখন বিজেপি করে বলেই মাকে লক্ষ্য করে গুলি চালিয়েছে বিজেপি। যদিও তৃণমূলের পক্ষ থেকে এই অভিযোগ উড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

এই প্রসঙ্গে জেলা পুলিশ সুপার জানান, অবৈধ সম্পর্কের জেরে দুই পরিবারের মধ্যে বচসার ফলেই এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। উত্তপ্ত পরিস্থিতি সামাল দিতে গোটা গ্রাম ঘিরে রেখছে বাহিনী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here