kolkata bengali news

নিজস্ব প্রতিবেদক, নদিয়া: নির্বাচনী নির্ঘণ্ট ঘোষণার পর থেকেই একের পর এক হিংসাত্মক ঘটনায় তেতে উঠেছে রাজ্যের বিভিন্ন এলাকা৷ কোথাও দেওয়াল লিখন মুছে দিয়ে আবার কখনও পা পোস্টার ছিড়ে দিয়ে নিজের প্রতিপক্ষকে ঠেকানোর চেষ্টা করছে রাজনৈতিক বিভিন্ন দল৷ চলছে আক্রমণ পাল্টা আক্রমণ৷ কেন্দ্রীয় বাহিনীর নজরদারি থাকা সত্ত্বেও নির্বাচনের আগে থেকেই যেভাবে অশান্তি ছড়াচ্ছে রাজ্যে তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে৷ এবার ভোটের মুখে শাসকদলের এক নেতার আক্রান্ত হওয়ার ঘটনায় ঘটল নদিয়া জেলার হরিণঘাটা৷ অভিযোগের তির গেরুয়া শিবিরের দিকে৷ পঞ্চায়েত সমিতির তৃণমূল সদস্যার স্বামী তথা তৃণমূল নেতাকে মারধরের অভিযোগ উঠলো বিজেপির বিরুদ্ধে।

রবিবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে নদিয়ার হরিনঘাটা থানার মোল্লা বেড়িয়ায়। সূত্রের খবর, হরিনঘাটা পঞ্চায়েত সমিতির মোল্লাবেড়িয়া এলাকার তৃণমূল সদস্যা চম্পা রানী দাসের স্বামী তৃণমূল নেতা সঞ্জিত দাস রবিবার আনুমানিক আটটা নাগাদ হরিণঘাটা বাজারে আসছিলেন। অভিযোগ, স্কুটার চালিয়ে আসার সময় হাজড়াবেরিয়ার কাছে হঠাৎই কয়েকজন বিজেপি কর্মী তার রাস্তা আটকে তাঁকে মারধর করে। মারধরের ফলে রক্তাক্ত অবস্থায় সঞ্জিতবাবু অচৈতন্য হয়ে মাটিতে পড়ে গেলে দুষ্কৃতীরা পালিয়ে যায়। পরে আহত সঞ্জিত দাসকে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যান স্থানীয় মানুষজন।

 

তৃণমূলের অভিযোগ, ভোটের আগে এলাকায় অশান্তির পরিবেশ সৃষ্টি করতে উদেশ্য প্রণোদিতভাবে তৃণমূল নেতাকে মারধর করেছে বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। ঘটনায় হরিনঘাটা থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন সঞ্জিতবাবু। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here