Home Featured ফের প্রকাশ্যে গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব, তৃণমূলের মারে জখম দলেরই উপপ্রধান!

ফের প্রকাশ্যে গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব, তৃণমূলের মারে জখম দলেরই উপপ্রধান!

0
ফের প্রকাশ্যে গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব, তৃণমূলের মারে জখম দলেরই উপপ্রধান!
Parul

নিজস্ব প্রতিনিধিতৃণমূলের মারে জখম দলেরই উপপ্রধান! পূর্ব বর্ধমানের গলসির ঘটনায় চাঞ্চল্য। রবিবার সন্ধ্যায় এ ব্যাপারে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন গলসির গোহগ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান বিমল ভক্ত। দলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব এভাবে প্রকাশ্যে চলে আসায় ক্ষুব্ধ তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্ব।

গলসির গোহগ্রাম পঞ্চায়েতের রশি রয়েছে তৃণমূলের হাতে। এই পঞ্চায়েতের প্রধান রিঙ্কু ঘোষ। উপপ্রধান বিমল ভক্ত। বেশ কিছুদিন ধরেই প্রধানের সঙ্গে উপপ্রধানের দ্বন্দ্বের চোরাস্রোত বইছিল। বিবাদ চরমে ওঠে দিন কয়েক আগে। সেদিন রিঙ্কু বলেছিলেন, দল চালাতে গেলে টাকা লাগে। এরই প্রতিবাদ করেছিলেন বিমল। ওই ঘটনার পর থেকে প্রধান বনাম উপপ্রধানের দ্বন্দ্ব বেআব্রু হয়ে পড়ে।

ফি বছর একুশে জুলাই দিনটি শহিদ দিবস হিসেবে পালন করে তৃণমূল। এবারও হবে, তবে ভার্চুয়ালি। রবিবাসরীয় সন্ধ্যায় তারই প্রচার সেরে বাড়ি ফিরছিলেন বিমল। অভিযোগ, ওই সময় আচমকাই তৃণমূল নেতা মৃত্যুঞ্জয় ঘোষ, আশিস বন্দ্যোপাধ্যায় সহ বেশ কয়েকজন তাঁর ওপর চড়াও হয়। তাঁকে রাস্তা থেকে ঠেলে বাঁধের নীচে ফেলে দেওয়া হয়। হাতের কাছে থাকা একটি গাছের ডাল ভেঙে বেধড়ক মারধর করা হয় তাঁকে। খুনের হুমকিও দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। ওই রাতেই থানায় অভিযোগ দায়ের করেন বিমল। তিনি বলেন, পঞ্চায়েতের দুর্নীতির প্রতিবাদ করায় আমাকে মারধর করা হয়েছে। গাছের ডাল ভেঙে বেধড়ক মারধর করা হয়েছে। থানায় অভিযোগ দায়ের করেছি। অভিযোগ অস্বীকার করেছেন অভিযুক্ত তৃণমূল নেতারা। গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তৃণমূল নেতৃত্বও।           

   

 

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here