kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, বালুরঘাট:  তপনদিঘির সরকারি জমি  নিজেদের নামে করে নেওয়ার বিজেপি’র তোলা অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে রায়তী জমি কেনার কাগজপত্র নিয়ে কোমর বেঁধে এবার আসরে নামলেন মন্ত্রী-ঘনিষ্ঠ ওই সাত তৃণমূল নেতা। উল্লেখ্য, গতকাল বিকেলে বিজেপি সাংসদ সুকান্ত মজুমদার সরকারি জমি হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ তুলেছিলেন। সেই অভিযোগকে খণ্ডন করতে সাংবাদিক বৈঠক করে ওই তপনের বিধায়ক তথা মন্ত্রীর ঘনিষ্ট সাতজন জমির কাগজপত্র নিয়ে সাংবাদিকদের সামনে হাজির হন।

মন্ত্রীর আপ্তসহায়ক রিন্টু বসাক ও তপন পঞ্চায়েত সমিতির সহ সভাপতি তাপস কুমার মণ্ডলরা রায়তী জমি কেনার আসল দলিল ও খতিয়ান দেখিয়ে বলেন, বিজেপি রাজনৈতিক অসৎ উদ্দেশ্যে জনগণকে বিভ্রান্ত করার জন্য এসব করছে। পাশাপাশি তাদের দাবি, তৃণমূল সরকারের উন্নয়নমূলক কাজকর্মের সঙ্গে টক্কর দিতে না পারার জন্য তাদের কালিমালিপ্ত করার চেষ্টা চালাচ্ছে বিজেপি। যা কোনওদিন সফল হবে না বলে তাদের দাবি।

তাদের অভিযোগ, আমাদেরকে মন্ত্রীর ঘনিষ্ট বলে যে অভিযোগ বিজেপির তরফে করা হচ্ছে, তা ঠিক নয়। তাদের দাবি, সংস্কার শুরু হওয়ার আগে সরকারের তরফে দিঘির মাপজোক করার সময় এলাকার ৯০ বছরের এক বৃদ্ধার এই রায়তী জমি  উদ্বৃত্ত হিসেবে বেরিয়ে আসে। সেই সময় তার মেয়েদের সরকারের তরফে ডেকে পাঠিয়ে জমিটি সরকারকে দান করতে বললে তারা তা করতে অস্বীকার করেন। তারা বলে তারা জমিটি বিক্রি করতে চান। কিন্তু এত বড় জমি একসঙ্গে কেনার কোনও লোক না পাওয়া যাওয়ায় দিঘির সংস্কারের কাজ যাতে বন্ধ না হয়ে যায়, সেই জন্য তারা ৭ জন স্থানীও বাসিন্দা হিসেবেই ওই রায়তী সম্পত্তি টাকা দিয়ে কিনেছেন। এর মধ্যে সরকারের কোনও খাস জমি নেই বলে তারা একযোগে জানান। এরপরেই তারা বিজেপিকে চড়া সুরে আক্রমণ করে বলেন, বিজেপি রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে তাদের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ করছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here