মহানগর ওয়েবডেস্ক: আসানসোলের বিজেপি সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়র বিরুদ্ধে এবার মানহানীর মামলা করলেন তৃণমূল যুব সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। বাবুল সুপ্রিয়র করা একটি টুইটের প্রেক্ষিতে এই মামলা করেছেন তিনি। আইনি নোটিশ দিয়ে অভিষেক দাবি করেছেন, বাবুলকে নিঃশর্তে ক্ষমা চাইতে হবে। এবং ৭২ ঘণ্টার মধ্যে ‘বিতর্কিত’ টুইট মুছে ফেলতে হবে।

কী এমন হয়েছিল যে অভিষেক আইনি নোটিশ দিলেন বাবুলকে? সূত্রের খবর, মহালয়ার দিন সকালে ফেসবুক লাইভে এসেছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে তাঁকে বলতে শোনা যায়, ‘মুখ্যমন্ত্রীর অমানবিক, অক্লান্ত পরিশ্রমে বাংলার একাধিক প্রকল্প বিশ্ব দরবারে সম্মানিত হচ্ছে।’ বাবুল সুপ্রিয় সেই ‘অমানবিক’ শব্দটিকে হাতিয়ার করে পাল্টা একটি টুইটে লেখেন, ‘মুখ ফসকে সত্যি কথাটা বেরিয়ে গেছে— ‘অমানবিক মুখ্যমন্ত্রী’ আমি একটুও আশ্চর্য নই যে এটা পোস্ট করা ভিডিয়োতে রয়ে গিয়েছে। কারণ, যারা এটা শুট করেছে তারাও ‘অমানবিক মুখ্যমন্ত্রী’ দিদির অমানবিক তৃণমূলী দুষ্কর্মে এতটাই লিপ্ত যে, ভুল করে ‘বেরিয়ে’ যাওয়া এই সত্যটি ধরতেই পারেনি।’

বাবুলের এই টুইটের প্রেক্ষিতেই তাঁকে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের আইনজীবী। টুইট মুছে ক্ষমা না চাইলে দেওয়ানি ও ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্ত করা হবে আসানসোলের বিজেপি সাংসদকে। তবে সাংসদ বাবুল নিজে অভিষেকের এই টুইটকে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছেন না বলেই জানা গিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here