ডেস্ক: সোমবার অসমে এনআরসির নাগরিকত্ব সংক্রান্ত দ্বিতীয় এবং চূড়ান্ত খসড়া প্রকাশের পরই হুলুস্থুল পড়ে গিয়েছে জাতীয় রাজনীতিতে। চূড়ান্ত তালিকায় ৪০ লক্ষ অসমবাসীর নাম বাদ পড়ায় এদিন রাজ্যসভায় এর প্রতিবাদে সরব হন তৃণমূল সাংসদেরা। হই হট্টগোলের জেরে দুপুর ১২টা পর্যন্ত স্থগিত রাখা হয় রাজ্যসভার বাদল অধিবেশন। তৃণমূল সাংসদেরা একদিকে ৪০ লক্ষ নাম বাদ যাওয়া নিয়ে সওয়াল তোলেন। পাল্টা রাজনাথ সিং সাফাই দিয়ে বলেন, সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ নিয়ে রাজনীতি না করাই উচিৎ।

এনআরসির রিপোর্টের বিরোধিতা করে লোকসভাতেও এদিন সরব হন তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায়। অন্যদিকে, রাজ্যসভায় ডেরেক ও’ব্রায়েনের নেতৃত্বে রাজ্যসভায় হাঙ্গামা শুরু করেন বিরোধী নেতারা। রাজ্যসভা সভাপতি তথা উপরাষ্ট্রপতি বেঙ্কাইয়া নাইডু হট্টগোল সামাল দেওয়ার চেষ্টা করলেও শেষ পর্যন্ত ১২টা পর্যন্ত কার্যক্রম স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নেন তিনি।

বিষয়টি নিয়ে সাফাই দিতে উঠে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং বলেন, “কেউ কেউ কারণ ছাড়াই এই খসড়া নিয়ে অযথা অশান্তি করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এনআরসির এই রিপোর্ট সম্পূর্ণ নিরপেক্ষ, এই নিয়ে কোনও ভ্রান্তি ছড়ানোর চেষ্টা করা উচিৎ নয়। এটা কোনও চূড়ান্ত খসড়া নয়, কেবল প্রথম তালিকা।”” উল্লেখ্য, এনআরসির এই বিতর্কিত তালিকা বেরনোর পর দেখা যায় তাতে বাদ পড়েছে ৪০ লক্ষ নাম। আর এই ঘটনার পরই আরও তুঙ্গে ওঠে বিবাদ।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here