sougata roy bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: শুক্রবারের পর শনিবার, ফের একবার নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের প্রতিবাদে উত্তপ্ত রইল গোটা বাংলা। জায়গায় জায়গায় চলচল বিক্ষোভ। কিন্তু কিছু জায়গায় তা মারাত্মক আকার নেয়। মুর্শিদাবাদের কৃষ্ণপুর রেল স্টেশনে পর পর পাঁচটি ফাঁকা ট্রেনে আগুন লাগিয়ে দেয় বিক্ষোভকারীরা। ট্রেনে ভাংচুর চালানো হয় মালদা সহ একাধিক স্টেশনে। যে কারণে দক্ষিণ-পূর্ব শাখায় প্রচুর ট্রেন বাতিল করতে হয়েছে রেল কর্তৃপক্ষকে। পরিস্থিতি সামাল দিতে বারবার উত্তেজনা থেকে বিরত থাকতে বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু তৃণমূলের সাংসদ সৌগত রায় মনে করেন না বাংলা জ্বলছে।

এদিন সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হলে তাঁকে যখন এই নিয়ে প্রশ্ন করা হয় তখন সৌগত জবাব ছিল চমকে দেওয়ার মতো। তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি না বাংলা জ্বলছে।’ তাহলে এত জায়গায় যে আগুন লাগানো হচ্ছে, ট্রেন পুড়িয়ে ফেলা হচ্ছে, এগুলো কী? সৌগতর কথায়, ‘টায়ারে আগুন লাগালো কোনও বড় ব্যাপার নয়।’ অসমের পরিস্থিতির সঙ্গে বাংলার তুলনা টেনে তাঁর বক্তব্য, ওখানে গুলি চলেছে। এখানে চলেনি, তাই এত চিন্তা করার কারণ নেই। সৌগত বলেন, ‘বাংলা জ্বলছে বলে মনে করি না। কয়েকটি ঘটনা ঘটেছে। শান্তির আবেদন করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। শীঘ্রই শান্তি ফিরবে। টায়ারে আগুন লাগানো বড় ঘটনা নয়। অসমের সঙ্গে তুলনা করার মতো কিছুই হয়নি। অসমের মতো এখানে পুলিশ গুলি চালায়নি।’

এরপরই অবশ্য মমতা ফের একবার বলেছেন, ‘সকল রাজ্যবাসীর কাছে আমি আবার অনুরোধ করছি যে কোনও ভাবেই কোন রকম হিংসাত্মক কাজকর্মে লিপ্ত হবেন না এবং রাজ্যজুড়ে সম্প্রীতি ও শান্তি বজায় রাখুন।
মনে রাখবেন পুলিশ থানা, রেল স্টেশন, বিমানবন্দর, পোস্ট অফিস, সরকারী দপ্তর, পরিবহন ব্যবস্থা এ সকলই হল জনগনের সম্পত্তি। সরকারি এবং বেসরকারি, যে কোন ধরণের সম্পত্তির কোনরকম ক্ষতি হলে তা রাজ্য সরকার কোনও মতেই বরদাস্ত করবে না এবং আইনানুগ কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। রাজ্য সরকার একদিকে যেমন নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল এবং এনআরসি-র বিরুদ্ধে, পাশাপাশি রাজ্য সরকার সমস্ত রকম দাঙ্গা-হাঙ্গামা এবং শান্তি নষ্ট করার যাবতীয় প্রচেষ্টারও ঘোর বিরোধী। আমরা নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল এবং এনআরসির বিরুদ্ধে যাবতীয় বিরোধিতা করতে চাই কেবলমাত্র গণতান্ত্রিক এবং শান্তিপূর্ণ উপায়ে। কিছু রাজনৈতিক দল ধর্মীয় গোঁড়ামি এবং সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করার উদ্দেশ্যে রাজ্যজুড়ে অশান্তির আবহ ও দাঙ্গা তৈরি করার চেষ্টা করছে। আমি সকলকে অনুরোধ করছি তাদের এই অসাধু উদ্দেশ্যে কর্ণপাত না করতে। সকল রাজ্যবাসীর কাছে আমার সনির্বন্ধ অনুরোধ যে সবাই শান্তি এবং সম্প্রীতি বজায় রাখুন।’

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here