kolkata bengali news

জেলা ডেস্ক: কলকাতায় বিদ্যাসাগর কলেজে বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার ঘটনায় বুধবার দিনভর উত্তাপ ছড়িয়ে রইল বাংলা জুড়ে। আর সেই উত্তাপ রাজনীতিতে টেনে আনতে বেশ সফল রূপায়ণ করে দেখা গেল রাজ্যের শাসক দলকে। ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর জন্মগ্রহন করেছিলেন পশ্চিম মেদিনীপুরের ঘাটাল থানার অন্তর্গত বীরসিংহ গ্রামে। স্বাভাবিক ভাবেই এই জেলার লোকেরা বিষয়টি ভালোভাবে মেনে নেয়নি। এদিন তাই মেদিনীপুরের মাটিতেই বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার প্রতিবাদ সবার আগে হতেই চোখে পড়ল। বুধবার দিনের শুরুতেই মেদিনীপুর শহরের বিদ্যাসাগরের মূর্তির সামনে বিজেপির সর্বভারতীয় নেতা অমিত শাহের কুশপুতুল দাহ করে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে জেলা তৃণমূলের কর্মী সমর্থকেরা। অবস্থান বিক্ষোভও শুরু হয়। সেই সঙ্গে দাবি ওঠে মূর্তি ভাঙার পাশাপাশি ভাঙচুর করার ঘটনায় জড়িত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। সারা জেলা জুড়ে বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকেও অনুরূপ কর্মসুচী নেওয়া হয়।

এদিন সকালেই মূর্তি ভাঙার ঘটনা নিয়ে বাঁকুড়ায় পথে নামে তৃণমূল। বুধবার সকালে বাঁকুড়ার দুর্লভপুর মোড়ের কাছে ৬০ নম্বর জাতীয় সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে রাস্তা অবরোধ করেন স্থানীয় তৃণমূল নেতা কর্মীরা। সকাল সাড়ে ১০টা থেকে রাস্তায় বসে ১১টা অবধি প্রতীকি পথ অবরোধ করার পাশাপাশি দীর্ঘক্ষন বিক্ষোভও দেখান স্থানীয় তৃণমূল কর্মীরা। অন্যদিকে বর্ধমান শহরেও বিদ্যাসাগরের মূর্তির সামনে অমিত শাহর কুশপুত্তলিকা দাহ করে বিক্ষোভ দেখায় জেলা যুব তৃণমূল। অভিযুক্তদের গ্রেফতারের দাবি করে বিক্ষোভ দেখান তারা। এই দাবিতে বিদ্যাসাগর মূর্তির সামনে অবস্থান বিক্ষোভও শুরু করেন তারা। একইভাবে এই ঘটনার প্রতিবাদে সামিল হয়েছেন বিভিন্ন অন্যান্য রাজনৈতিক সংগঠনও।

বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার প্রতিবাদে তৃণমূল ছাত্র পরিষদ ও যুব তৃণমূলের যৌথ উদ্যোগে প্রতিবাদ মিছিল এদিন চোখে পড়েছে নদিয়া জেলার নবদ্বীপ শহরে। বুধবার বেলা বারোটা নাগাদ নবদ্বীপ বিদ্যাসাগর কলেজের তৃণমূল ছাত্র পরিষদ ও যুব তৃণমূলের যৌথ উদ্যোগে একটি প্রতিবাদ মিছিল বের হয়। এই মিছিলে পা মেলান বিদ্যাসাগর কলেজের সমস্ত ছাত্র ছাত্রী সহ শহরের যুবসমাজ। এদিন কলেজের অভ্যন্তরে বিদ্যাসাগরের প্রতিকৃতিতে মাল্যদান করেন কলেজের অধ্যক্ষ অরুন কুমার মন্ডল। এরপর মিছিলটি সমগ্র নবদ্বীপ শহর প্রদক্ষিণ করে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here