Home Featured আরও এক পঞ্চায়েতের রাশ হাতছাড়া বিজেপির, দখল নিল তৃণমূল

আরও এক পঞ্চায়েতের রাশ হাতছাড়া বিজেপির, দখল নিল তৃণমূল

0
আরও এক পঞ্চায়েতের রাশ হাতছাড়া বিজেপির, দখল নিল তৃণমূল
Parul

নিজস্ব প্রতিনিধি : ভাঙন অব্যাহত বিজেপিতে। দলে ভাঙনের জেরে গেরুয়া শিবিরের হাতছাড়া হল ঝাড়গ্রামের নেদাবহড়া পঞ্চায়েতের রাশ। পঞ্চায়েতের দখল নিল তৃণমূল। বিজেপির এক সদস্য গেরুয়া শিবির ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেওয়ায়ই বিপর্যয় বিজেপির।

লোকসভা নির্বাচনে এ রাজ্যে অভাবনীয় ফল করে বিজেপি। আগের লোকসভা নির্বাচনে সংসদে তাদের প্রতিনিধির সংখ্যা ছিল দুই। ঊনিশের লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির আসন সংখ্যা বেড়ে হয় ১৮। প্রত্যাশিতভাবেই আসন কমে যায় তৃণমূলের। একলপ্তে ১৬টি আসন বেড়ে যাওয়ায় নবান্ন দখলের স্বপ্ন দেখতে শুরু করেন গেরুয়া নেতা-কর্মী-সমর্থকরা। এই পর্বে দলে দলে লোকজন তৃণমূল ছেড়ে যোগ দেন বিজেপিতে।

একুশের ভোটে মুখ থুবড়ে পড়ে বিজেপি। এ রাজ্যে ২০০ আসনের লক্ষ্যমাত্রা নিলেও, বিজেপি পায় মাত্র ৭৭টি। এর পরেই মোহভঙ্গ হয় তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়া নেতা-কর্মী-সমর্থকদের। শুরু হয় উজান টানে ফেরা। দলে দলে লোকজন পদ্মশিবির ছেড়ে হাতে তুলে নিতে শুরু করেছেন ঘাসফুল আঁকা ঝান্ডা। স্বাভাবিকভাবেই বিজেপির হাতছাড়া হতে শুরু করেছে পঞ্চায়েত। যেমন হাতছাড়া হল ঝাড়গ্রামের নেদাবহড়া পঞ্চায়েত।

সোমবার নেদাবহড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের সদস্য বিজেপির বিষ্টু সিং সদলে যোগ দেন তৃণমূলে। বিষ্টু দলবদল করতেই ওই পঞ্চায়েতে সংখ্যালঘু হয়ে পড়ে বিজেপি। সংখ্যা গরিষ্ঠতা অর্জন করে তৃণমূল। যদিও ২০১৮র পঞ্চায়েত নির্বাচনে এই পঞ্চায়েতের রাশ এসেছিল বিজেপির হাতে। ঘাসফুল শিবিরের দাবি, উন্নয়নের জোয়ারে শামিল হতেই তাঁরা যোগ দিয়েছেন তৃণমূলে। যদিও বিজেপির দাবি উল্টো। পদ্মশিবিরের দাবি, ভয় দেখিয়ে তৃণমূলে যোগদান করানো হয়েছে তাঁদের। এর আগে জঙ্গলমহলের সাঁকরাইলের রোহিণী ও ছত্রী গ্রাম পঞ্চায়েতও বিজেপির কাছ থেকে ছিনিয়ে নিয়েছিল তৃণমূল। এবার তাদের হাতে এল জঙ্গলমহলের আরও এক পঞ্চায়েত। নেদাবহড়া গ্রাম পঞ্চায়েত।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here