derek

মহানগর ডেস্ক: পশ্চিমবঙ্গে নির্বাচনের নির্ঘণ্ট প্রকাশ করেছে কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশন। কমিশনের নির্ঘণ্টের সঙ্গে সঙ্গেই লাগু হয়েছে নির্বাচনী বিধি। কিন্তু, কেন্দ্রীয় সরকার সেই নির্বাচনী বিধি মানছে বলে টুইট করলেন তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়ান। করোনা টিকার শংসাপত্রে কেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ছবি থাকবে? এই প্রশ্ন তুলেই টুইট করেন তিনি। এই বিষয়টি নিয়ে তাঁরা নির্বাচন কমিশনের কাছেও যাবে বলে জানান তিনি। মঙ্গলবার সকালে তিনি টুইট করে লেখেন, ‘নির্বাচনের ঘোষণা হয়ে গিয়েছে। কিন্তু করোনা টিকার শংসাপত্রে এখনও কেন প্রধানমন্ত্রীর ছবি রয়েছে? আমরা এই বিষয়টি নিয়ে নির্বাচন কমিশনের কাছেও যাব।’

 

সূত্রের খবর, এই বিষয়টি নিয়ে শীঘ্রই নির্বাচন কমিশনের কাছে যাবে তৃণমূল। করোনা টিকার শংসাপত্র থেকে নরেন্দ্র মোদির ছবি মুছে দেওয়ার দাবি জানাবে তাঁরা।

নির্বাচনের দিন ঘোষণার পর থেকেই নির্বাচনী বিধি লাগু হয়ে যাওয়ার পর থেকেই সে দিকে তীক্ষ্ণ নজর রেখেছে নির্বাচন কমিশন। কিছুদিন আগেই দক্ষিণ কলকাতার গড়ফা অঞ্চলে স্বাস্থ্যসাথীর কাজ বন্ধ করে দেয় নির্বাচন কমিশন। অন্যদিকে, এই করোনা টিকায় প্রধানমন্ত্রীর ছবির বিষয়টি নিয়ে অযথা রাজনীতি করার অভিযোগ এনেছে বিজেপি।

রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, এতদিন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর অফিস তথা ‘সিএমওএইচ’ বন্ধ করার কথা বারংবার বলছিলেন বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী। এবার তার পাল্টা হিসাবেই প্রধানমন্ত্রীর ছবির বিষয়টি সামনে আনা হয়েছে বলে মনে করছেন রাজনীতিবিদরা।

মঙ্গলবারের সকালে ডেরেকের এই টুইট নিয়ে রাজনৈতিক দর কষাকষি আবারও বাড়বে বলে মনে করছে বাংলার রাজনৈতিক মহল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here