bengali news kolkata

Highlights

  • ট্রেন চলাচলে ব্যাঘাত ঘটছে সকাল থেকেই
  • বিভিন্ন জেলা থেকে টুকরো টুকরো অশান্তির খবর
  • হৃদয়পুর স্টেশনে রেললাইন থেকে উদ্ধার হয় ৩টি তাজা বোমা

মহানগর ওয়েবডেস্ক: শহরের জনজীবন তুলনামূলক স্বাভাবিক হলেও জেলার অবস্থা তুলনামূলক খারাপই। আরও সঠিকভাবে বলতে গেলে রেললাইন বা ট্রেন চলাচলের অবস্থা। নাগরিকপঞ্জী, নাগরিকত্ব আইন-সহ একাধিক ইস্যুতে বাম ও বিরোধীদের ডাকা ভারত বনধে দফায় দফায় অবরোধ-বিক্ষোভে নাজেহাল হতে হচ্ছে নিত্যযাত্রীদের। শহরে বিক্ষিপ্ত অশান্তির ঘটনা ঘটলেও যান চলাচল প্রায় স্বাভাবিক। কিন্তু ট্রেন চলাচলে ব্যাঘাত ঘটছে সকাল থেকেই।

শুরুটা হয়েছিল যাদবপুর স্টেশন থেকেই। সেখানে বাম নেতা সুজন চক্রবর্তীর নেতৃত্বে রেল অবরোধ হয় সকালেই। এরপর জানা গিয়েছে আগরপাড়া ও মধ্যমগ্রামে অবরোধের কারণে শিয়ালদহ থেকে সকাল থেকে ট্রেন সময়মতো ছাড়েনি। রেললাইনে বসে, ওভারহেড তারে কলাপাতা ফেলে বহু জায়াগায় থামিয়ে দেওয়া হয় ট্রেন। অন্যদিকে, হৃদয়পুর স্টেশনে রেললাইন থেকে উদ্ধার হয় ৩টি তাজা বোমা! ডায়মন্ডহারবার, বেলঘড়িয়া সহ বিভিন্ন স্টেশনে বিক্ষোভকারী অবরোধে সামিল।

রাজ্যের বিভিন্ন জেলার চিত্রটা ঠিক একইরকম। শিয়ালদহ থেকে বিভিন্ন জায়গার ট্রেন ছাড়তে দেওয়া হয়নি। বেশকিছু ট্রেন ছাড়লেও মাঝপথে বিক্ষোভকারী সেই ট্রেন থামিয়ে দেয়। এদিকে, হাওড়া শাখাতেও ট্রেন চলাচলে বিঘ্ন ঘটে। ফেরিঘাটেও তুলনায় যাত্রীদের সংখ্যা অন্যদিনেক থেকে কম রয়েছে বলে জানা গিয়েছে, ফলে ফেরি চলাচলও স্বাভাবিকরূপ নিতে পারেনি।

বামেদের ডাকা সাধারণ ধর্মঘটে জনজীবন স্বাভাবিক রাখার নির্দেশ আগেই দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর নির্দেশ মতো বনধের দিন পরিবহণ ব্যবস্থাকে সচল রাখতে সক্রিয় হয়েছিল রাজ্যের পরিবহণ দপ্তর। সেই মতো অতিরিক্ত ৫০০ সরকারি বাস পথে নামানোর কথা ছিল। সকাল থেকে শহরের যা হাল তাতে পরিস্থিতিতে বনধের প্রভাব নেই বললেই চলে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here