ডেস্ক: পঞ্চায়েত জট খুলতে বৃহস্পতিবার নবান্নে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে বসতে চলেছে রাজ্য প্রশাসনের শীর্ষস্থানীয় আমলারা। ৪ মে ডিভিশন বেঞ্চে নিরাপত্তার সমস্ত খুঁটিনাটি বিষয় সরকার পেশ করার আগে, রিপোর্টের সমস্ত ভুল ত্রুটি মেটাতেই এই বৈঠকে বসছেন আমলারা। বৃহস্পতিবারের এই বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন রাজ্যের মুখ্য সচিব মলয় দে, রাজ্য পুলিশের ডিজি সুরজিৎ পুরকায়স্থ, এডিজি আইনশৃঙ্খলা অনুজ শর্মা ও পঞ্চায়েত সচিব।

দীর্ঘ জটে আটকে পঞ্চায়েত নির্বাচন। সুষ্ঠভাবে ভোট সম্পন্ন করতে গেলে নির্বাচন কমিশনকে পেরতে হবে ডিভিশন বেঞ্চে আটকা থাকা বিরোধীদের মামলার বাধা। বিরোধীদের অভিযোগ পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা ছাড়াই তৃণমূলের চাপের মুখে একদফাতে ভোট করাতে চাইছে কেন্দ্র। সেই মামলার রায় ঘোষণা হবে ৪ মে। তার আগে রাজ্যকে পঞ্চায়েত ভোটের নিরাপত্তা সংক্রান্ত সমস্ত নথি পেশ করতে বলেছে হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ। নবান্ন সূত্রের খবর, এই বৈঠকে বিষয় হবে পঞ্চায়েত ভোটের নিরাপত্তা। বাইরের রাজ্য থেকে বাহিনী এনে ভোট করানোর প্রস্তাব দিয়েছে রাজ্য। তাই বাইরের রাজ্য থেকে কত বাহিনী আনা হবে তা নিয়ে আলোচনা করা হবে। পঞ্চায়েত নির্বাচন কমিশনকে কি রিপোর্ট দেওয়া হবে তাও ঠিক করা হবে এই বৈঠকের মাধ্যমে।

উল্লেখ্য, পঞ্চায়েত ভোট কবে হবে তা নিয়ে তরজা বন্ধ নেই। পঞ্চায়েত সংক্রান্ত মামলায় নিরাপত্তা ইস্যুতে বিরোধীদের মামলার ভিত্তিতে হাইকোর্ট ও ডিভিশন বেঞ্চে। পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা খতিয়ে না দেখে ১ দফাতে অনৈতিকভাবে ভোটের দিনক্ষন প্রকাশ করেছে নির্বাচন কমিশন। এই অভিযোগ তুলে সিঙ্গেল বেঞ্চে মামলা দায়ের করে পিএসডি। সেই মামলার রায়ে গতকালই হাইকোর্ট জানায় যেহেতু আদালতের পঞ্চায়েত মামলায় নিরাপত্তার বিষয়টি ডিভিশন বেঞ্চ দেখছে, সেহেতু ১৪ তারিখ ভোট হবে কিনা তা নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে ডিভিশন বেঞ্চ। যদি রাজ্য পঞ্চায়েত ভোটের নিরাপত্তা বিষয়ে সঠিক খতিয়ান দিতে পারে সেক্ষেত্রে ১৪ তারিখেই হবে নির্বাচন। আর নিরাপত্তায় যদি কোনও গলদ থেকে থাকে তবে ১৪ তারিখ বাতিল করতে পারে ডিভিশন বেঞ্চ। প্রসঙ্গত, ৪ মে এই মামলার রায় দেবে হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here