kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: এই পুজোকে ঘিরে নানা ইতিহাসের উপকথা জড়িয়ে আছে৷ সময়ের সঙ্গে অনেক নিয়ম নীতির পরিবর্তন হয়েছে৷ কিন্তু প্রাচীনতার ছোঁয়াচ রয়েছে উত্তর দিনাজপুরের কালিয়াগঞ্জ ব্লকের রাধিকাপুর উদগ্রামের পুজোয়৷ এক সময়ে সাবেক দিনাজপুরের রাজ বাড়ির কামানের গোলা ফাটানোর আওয়াজ শুনেই বর্তমান ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের উত্তর দিনাজপুর জেলার উদগ্রামের দুর্গাপুজোর সূচনা হত। আজ সেই সব শুধুই গল্পগাঁথায় পরিণত হয়েছে। কালের নিয়মে অনেক কিছুই পাল্টে গেছে৷ এখনও এখানে কাঁটাতারের বেড়া দেশভাগের যন্ত্রণা বয়ে বেড়াচ্ছে৷

কত বছর আগে এই পুজো শুরু হয়, তা সঠিকভাবে কেউ বলতে পারছেন না৷ অনুমান, কম করে ৩০০/৪০০ বছর আগে পুজোর প্রচলন হয়৷ দেশভাগ হওয়ার পর এই রাধিকাপুরের উদগ্রামের দুর্গা মন্দিরের নামে থাকা চল্লিশ বিঘা জমিও চলে গিয়েছে সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়ার ওপারে। বর্তমানে যা বাংলাদেশের মধ্যে। আর এপারে রয়ে গিয়েছে দেবীর মূল মন্দির এবং মন্দির সংলগ্ন ১৩ বিঘা কৃষি জমি। সেই জমিতে ফসল চাষ ও ভক্তদের অর্থদানে বর্তমানে দেবী পুজার আয়োজন করা হয়।

দেশভাগ পুজোর আচার অনুষ্ঠানে কোনও প্রভাব ফেলেনি৷ আজও এপার বাংলার উদগ্রামে নিষ্ঠাভরে গ্রামবাসীরা পুজো করে চলেছেন৷ সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়াজাল তৈরি হলেও আজও শারদীয়া উৎসবে উদগ্রামের পুজোকে ঘিরে উৎসাহ উদ্দীপনার কোনও খামতি নেই৷ পুজোর ক’দিন গ্রামের মানুষ খুব একটা বাইরে কোথাও যান না৷ প্রাচীন এই দুর্গা পুজোকে কেন্দ্র করে ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী উদগ্রামে এখন থেকেই সাজোসাজো রব পড়ে গিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here