kolkata bengali news

নিজস্ব প্রতিবেদক, বারাসত: সেনা জওয়ানের পর এবার আইনজীবী! রাস্তার মোড়ে যানজটে গাড়ি থমকে যাওয়ায় আইনজীবীর হাতে বেধড়ক মার খেলেন কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশকর্মী৷ শনিবার সকালে বেনজির এই ঘটনাটি ঘটেছে বারাসত পুরসভার সামনে৷ পুলিশ জানায়, বারাসত আদালতের আইনজীবী শাহীদুজ জামান ট্রাফিকে কর্তব্যরত বিশ্বজিত দত্ত সহ ৩ পুলিশকর্মীকে বেধড়ক মারধর করেছেন বলে অভিযোগ৷ আইনজীবী হয়ে শাহীদুজ জামান কীভাবে আইন নিজের হাতে তুলে নিলেন, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে৷

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এদিন সকালে বারাসত পুরসভার সামনে ট্রাফিক সামলাচ্ছিলেন বিশ্বজিত দত্ত নামে এক পুলিশকর্মী৷ বেলা ১১টা নাগাদ ওই এলাকায় তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়৷ যার জেরে আদালতের অদূরেই থমকে যায় আইনজীবী শাহীদুজ জামানের গাড়ি৷ এভাবে মাঝপথে গাড়ি আটকে যাওয়ায় শাহীদুজ জামান ক্ষুব্ধ হন এবং গাড়ি থেকে নেমে ট্রাফিকে কর্তব্যরত পুলিশকর্মী বিশ্বজিত্ দত্তর উপর চড়াও হন৷ তিনি প্রথমে বিশ্বজিত্ দত্তকে গালাগাল এবং পরে মারধর করেন বলে অভিযোগ৷ অদূরে দাঁড়িয়ে থাকা অন্যান্য ট্রাফিককর্মীরা বিশ্বজিতকে বাঁচাতে গেলে শাহিদুজ জামান ও তাঁর দলবল ওই ট্রাফিক কর্মীদেরও মারধর করেন বলে অভিযোগ৷ আইনজীবী ও তাঁর দলবলের প্রহারে বিশ্বজিত্ দত্ত ও তাঁর সহকর্মী স্বপন শূর গুরুতর জখম হয়েছেন৷ এরপর স্থানীয়রাই বিশ্বজিত্ দত্ত ও তাঁর সহকর্মীদের শাহীদুজ জামানের হাত থেকে উদ্ধার করে বারাসত হাসপাতালে নিয়ে যান৷ সেখানে প্রাথমিক চিকিত্সা করানোর পর তাঁরা বারাসত থানায় গিয়ে শাহীদুজ জামানের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন৷

অন্যদিকে, আইনজীবী হয়ে এভাবে নিজের হাতে আইন তুলে নেওয়ায় শাহীদুজ জামানের বিরুদ্ধে তীব্র সমালোচনা শুরু হয়েছে৷
আইনের উর্ধ্বে কেউ নয় জানিয়ে বারাসতের পুর চেয়ারম্যান সুনীল মুখোপাধ্যায়ও পুরসভার তরফে শাহীদুজ জামানের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হবে বলে জানিয়েছেন৷ আইনজীবি শাহীদুজ জামান অবশ্য এই ঘটনায় মুখ খোলেননি৷ তবে আইনের রক্ষকদের মধ্যেই যেভাবে আইন নিজের হাতে তুলে নেওয়ার প্রবণতা যেভাবে বাড়ছে, তা গণতন্ত্রের পক্ষে আদৌ সুখকর নয় বলেই মনে করছে সংশ্লিষ্ট মহল৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here