kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি: গতকাল তৃতীয়বারের জন্য মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পর করোনা মোকাবিলায় বেশ কিছু কড়া পদক্ষেপ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা মতো আজ থেকে বন্ধ হয়ে গিয়েছে রাজ্যের সমস্ত লোকাল ট্রেন। একমাত্র হাতেগোনা কিছু স্টাফ স্পেশ্যাল ট্রেন চলছে। সেই ট্রেনে একমাত্র রেল কর্মচারী ছাড়া কোনও সাধারণ যাত্রীকে উঠতে দেওয়া হচ্ছে না। প্লাটফর্মে প্লাটফর্মে রেল পুলিশের তরফ থেকে এ ব্যাপারে প্রচার চালানো হচ্ছে।

অন্যদিকে, বাস এবং মেট্রোতে যাত্রী সংখ্যা অর্ধেক বেঁধে দেওয়ায় চরম অসুবিধায় পড়েছেন নিত্যযাত্রীরা।  শ্যামনগর, নৈহাটি, কাকিনাড়া থেকে মানুষ অটো ও টোটো ধরে ব্যারাকপুর যাচ্ছেন। ব্যারাকপুর থেকে সরকারি বাস ধরার জন্য লম্বা লাইনে দাঁড়াতে হচ্ছে তাদের। কিন্তু সময়মতো বাস মিলছে না। মিললেও তাতে উপছে পড়া ভিড়। যাত্রীদের দাবি, ট্রেন বন্ধ না করে দূরত্ব বজায় রেখে অফিস দিতে পারলে ভাল হতো। এইভাবে বহু সংখ্যক মানুষ ভিড়ে গাদাগাদি করে যাতায়াত করা করোনা সংক্রমণে সম্ভাবনা কমার বদলে উল্টে আরও বেড়ে যাচ্ছে বলে মনে করছেন তারা।

কয়েকদিন আগে রাজ্য প্রশাসন করোনা মোকাবিলায় বেশ কিছু বিধিনিষেধ জারি করেছিল রাজ্যে। কোনও কোনও মহল থেকে বলা হচ্ছিল নতুন সরকার তৈরি হওয়ার পর হয়তো রাজ্যে আবার জারি হতে পারে লকডাউন। গতকাল তৃতীয়বারের জন্য মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তারপর সেখান থেকে সরাসরি তিনি নবান্নে যান। সেখানে প্রশাসনিক কর্তাদের সঙ্গে উচ্চপর্যায়ের বৈঠক করেন। রাজ্যে চলতে থাকা করোনা পরিস্থিতি নিয়ে বেশকিছু কড়া পদক্ষেপ করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here