kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি: ‘মুখ্যমন্ত্রীর ফোন ট্যাপ করা হল কীভাবে? এই প্রশ্ন তুলল তৃণমূল। একইসঙ্গে তাদের আরও বক্তব্য, বিজেপি ফেক নিউজের ফ্যাক্টারি। মমতার নামে গুজব ছড়াচ্ছে। শীতলকুচির ঘটনার পর তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও জেলা তৃণমূল সভাপতি পার্থপ্রতিম রায়ের এই ফোনালাপ বিজেপি প্রকাশ্যে নিয়ে আসায় তাদের এই ভাবে আক্রমণ করল তৃণমূল। এই ঘটনায় প্রমাণ হয়েছে তৃণমূল ধর্মীয় মেরুকরণ করছে এই রাজ্যে- এই অভিযোগ তুলে আজ কমিশনে নালিশ জানিয়েছে বিজেপি।

‘মুখ্যমন্ত্রীর ফোন ট্যাপ করা হল কীভাবে? এই প্রশ্ন তুলে আসরে নামে তৃণমূল। দলের দুই সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন ও সুখেন্দুশেখর রায় জানান, বিজেপি ফেক নিউজের ফ্যাক্টারি। মমতার নামে গুজব ছড়াচ্ছে। ডেরেক বলেন, ‘আমাদের দেশে যে কেউ চাইলে যে কোনও লোকের ফোন ট্যাপ করতে পারে? বহিরাগত বর্গী এই ফোনগুলো ট্যাপ করে। বিজেপির মিথ্যে প্রচারের ফ্যাক্টারির মালিক এই বর্গীরা। বহিরাগত বর্গীরা তৃণমূলের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করছে।’

সুখেন্দুশেখর রায় বলেন, ‘শীতলকুচিতে কেন্দ্রীয় বাহিনী গুলি চালিয়েছিল নাকি চালায়নি? চালালে কীসের ভিত্তিতে চালাল? আত্মরক্ষার জন্য গুলি চালালে তার ভিডিয়ো ফুটেজ কোথায়? আইনে পরিষ্কার বলা আছে, ভিড় নিয়ন্ত্রণে যত সম্ভব কম বল প্রয়োগ করতে হবে। সেটা কেন্দ্রীয় বাহিনী কেন মানল না?’

উল্লেখ্য, গতকাল তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে লাশ নিয়ে রাজনীতি করার অভিযোগ আনে বিজেপি। একটি অডিয়ো টেপ প্রকাশ করে বিজেপি’র আইটি সেলের প্রধান অমিত মালব্য দাবি করেন, কোচবিহারের শীতলকুচির ঘটনায় মৃতদেহ নিয়ে র‍্যালি করার কথা বলছেন তৃণমূল নেত্রী। একই অভিযোগ করেন বিজেপি সংসদ তথা চুঁচুড়া বিধানসভায় বিজেপির প্রার্থী লকেট চট্টোপাধ্যায়ও।

পঞ্চম দফা ভোটের দিন শীতলকুচি-কাণ্ডে তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও দলীয় প্রার্থী পার্থপ্রতিম রায়ের কথোপকথন নিয়ে কমিশনে নালিশ করল বিজেপি। বিজেপির অভিযোগ, শীতলকুচির গুলিকাণ্ডকে হাতিয়ার করে ভোটে রাজ্যে ধর্মীয় মেরুকরণের চেষ্টা করছে তৃণমূল। শুধু তাই নয়, তৃণমূলনেত্রী রাজ্যের পুলিশ আধিকারিকদের ফাঁসানোর চেষ্টা করছেন বলেও অভিযোগ করেছেন বিজেপি নেতারা। আজ রাজ্যসভার প্রাক্তন বিজেপি সাংসদ তথা তারকেশ্বরের প্রার্থী স্বপন দাশগুপ্ত, নেতা শিশির বাজোরিয়ারা কমিশন নালিশ জানান এই টেপ নিয়ে। কমিশন থেকে বেরিয়ে স্বপন দাশগুপ্ত বলেন, বিজেপি মুখ্যমন্ত্রীর ফোন ট্যাপ করেনি। মিথ্যা অভিযোগ করা হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here