ডেস্ক: ত্রিপুরায় গেরুয়া বিপ্লব ঘটিয়ে উত্তর-পূর্বের ছোট্ট এই রাজ্যে সরকার গঠন করেছে বিজেপি। ছোট এই রাজ্যের মন্ত্রীসভার সদস্য মোট ৯ জন। এরই মাঝে উঠে আসলো চাঞ্চল্যকর তথ্য, ত্রিপুরার ৯ মন্ত্রীর মধ্যে ৬ জনই কোটিপতি। শুধু তাই নয়, মন্ত্রীসভার ৯ সদস্যের মধ্যে ৩ বিরুদ্ধে রয়েছে গুরুতর ফৌজদারী মামলা। নির্বাচনের হ্লফনামা খতিয়ে দেখে এমনটাই জানালো ‘অ্যাসোসিয়েশন অফ ডেমোক্রেটিক রিফোর্মস’।

উচ্চশিক্ষা, স্কুল শিক্ষা, আইন, সংসদ বিষয়ক, অনগ্রসর ও সংখ্যালঘু কল্যাণ দপ্তরের মন্ত্রী রতনলাল নাথ। খুন, হিংসা ছড়ানো, মানহানি সহ মোট ৪টি মামলা ঝুলছে তাঁর বিরুদ্ধে। অপর এক মন্ত্রী সুদীপ রায় বর্মন, তাঁর বিরুদ্ধে হিংসা ছড়ানো, মারধোর, আগ্নেয়াস্ত্র রাখা সহ একাধিক অভিযোগ রয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে। ইনি আবার স্বাস্থ্য ও জন পরিবার কল্যাণ মন্ত্রক, বিজ্ঞান, প্রযুক্তি ও পরিবেশ, শিল্প-বাণিজ্য, ও পূর্ত দপ্তরের মন্ত্রী। এবং তৃতীয় জন হলেন মনোজ কান্তি দেব। ইনি ক্রীড়া, যুবকল্যাণ, খাদ্য ও ক্রেতা সুরক্ষা দপ্তরের মন্ত্রী। এনার বিরুদ্ধেও চলছে গুরুতর দুটি ফৌজদারী মামলা।

শুধু তাই নয়, ত্রিপুরা মন্ত্রীসভার ৯ মন্ত্রীর মধ্যে ৬ মন্ত্রীই কোটিপতি। তবে সবচেয়ে ধনী হলেন উপমুখ্যমন্ত্রী জিষ্ণু দেব বর্মা। তাঁর সম্পত্তির পরিমান ১১ কোটি টাকা। তাঁর ঠিক পরেই রয়েছেন প্রাণাজিত সিংহ রায়। তাঁর সম্পত্তির পরিমান ৫ কোটি টাকা। এবং তৃতীয় স্থানে রয়েছেন সুদীপ রায় বর্মন। তাঁর সম্পতির পরিমান মাত্র ৩ কোটি টাকা। এটুকুতেই শেষ নয়, শিক্ষাক্ষেত্রেও ত্রিপুরার মন্ত্রীরা কম যান না। মন্ত্রীসভার মন্ত্রীদের মধ্যে মোট ২ মন্ত্রী স্নাতকোত্তর পাশ করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here