ডেস্ক: ত্রিপুরার ভাগ্য কী হবে তা আজকে জনগণের রায়ের উপরই নির্ভর করছে। মোটের উপর নির্বাচন প্রক্রিয়া শান্তিপূর্ণ ভাবে অনুষ্ঠিত হলেও ইভিএম মেশিনের গোলমালের কারণে বেশ কিছু বুথে ভোটগ্রহণ করা সম্ভব হয়নি। সূত্রের খবর, কমপক্ষে ২৫০টি বুথে ইভিএমের যান্ত্রিক ত্রুটি রয়েছে। শেষ পাওয়া খবরে দুপুর ১টা পর্যন্ত ৪৫.৮৬ শতাংশ রেকর্ড ভোট পড়েছে। কিন্তু ইভিএম বিভ্রাট নিয়ে ইতিমধ্যেই সুর চড়ান শুরু করেছে শাসক ও বিরোধী উভয় গোষ্ঠী।

ভোটের আগে ত্রিপুরায় দেখা গিয়েছিল যে কোনও বোতাম টিপলেই নির্দিষ্ট একটি জায়গায় ভোট চলে যাচ্ছে। এরপর তেলিয়ামুড়ায় বিজেপির এক সভাতেও রাজ্য সভাপতি বিপ্লব দেবকেও বলতে শোনা যায়, ”কার ভোট কোথায় পড়বে, শুধু মোদীজি জানেন আর আমি জানি!” বিষয়টি নিয়ে জলঘোলা হওয়ার পাশাপাশি নির্বাচন কমিশনেরও দ্বারস্থ হয়েছে সিপিএম নেতৃত্ব। একই সঙ্গে ইভিএম বিভ্রাটের ফলে নতুন করে কেন্দ্রের উপর আঙুল তোলা শুরু করেছেন শাসক দলের কর্মীরা।

ইভিএম বিতর্কের মোকাবিলায় অবশ্য রাজ্যজুড়ে ১৮৪ জন ইঞ্জিনিয়ারের টিম নামিয়েছে নির্বাচন কমিশন। মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার রামনগর কেন্দ্রের যে বুথের ভোটার সেই শিশুবিহারী হাইস্কুলেও এদিন সকালে ইভিএম খারাপ হয়েছিল। বেশ কিছুক্ষণ পর অবশ্য তা ঠিক হয়। অন্যদিকে উত্তর জেলায় কয়েকজন ইভিএম সারাতে ঢোকা ইঞ্জিনিয়ারের বিরুদ্ধে অভিযোগ, কমিশনের বৈধ পরিচয়পত্রই ছিল না তাদের কাছে। এই বিষয়টি নিয়ে জেলা শাসকের কাছে অভিযোগ জানিয়েছে সিপিএম। বিকল ইভিএম ছাড়া বিশেষ অশান্তির কোনও খবর অবশ্য এখনও পর্যন্ত মেলেনি। শান্তিপূর্ণ ভাবেই চলছে ভোটগ্রহণ পর্ব।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here