মহানগর ওয়েবডেস্ক: এক মাসেরও কম সময় বাকি আমেরিকার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের। এরই মধ্যে রিপাবলিকান পার্টির প্রার্থী ও বর্তমান প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের বিরুদ্ধে জনমানসে তৈরি হওয়া ক্ষোভ অনেকসময়ই প্রকাশ্যে চলে আসছে। সুপ্রিম কোর্টের প্রয়াত উদারপন্থী বিচারপতি রুথ বেদার গিন্সবার্গ–এর মরদেহের সামনে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে গিয়ে এরকমই ক্ষোভের সামনে পড়লেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। বিচারপতিকে শেষ বিদায় জানাতে আসা সাধারণ মানুষের মধ্যে থেকেই ট্রাম্পের উদ্দেশে ধেয়ে এল টিটকিরি ও তার বিরুদ্ধে ভোট দেওয়ার স্লোগান।

কালো ফেস মাস্কে মুখ ঢেকে আমেরিকার ফার্স্ট লেডি মেলিনা ট্রাম্প’কে নিয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্প গিয়েছিলেন মার্বেল কোর্টে ৮৭ বছর বয়সে প্রয়াত রুথ বেদার গিন্সবার্গ–এর প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে। আমেরিকার পতাকায় মোড়া কফিনের সামনে প্রেসিডেন্ট এসে দাঁড়াতেই মার্বেল কোর্টের সামনে জড়ো হওয়া মানুষদের মধ্যে থেকে ট্রাম্পকে লক্ষ্য করে টিটকিরি ভেসে আসতে থাকে। স্লোগান ওঠে ‘’ভোট দিয়ে ওকে সরাও’’।

প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিন্টন ১৯৯৩ সালে রুথ বেদার গিন্সবার্গকে সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি পদে নিয়োগ করেন। সুপ্রিম কোর্ট ক্রমান্বয়ে রক্ষণশীল হয়ে উঠলেও গিন্সবার্গ ধীরে ধীরে উদারনৈতিকতার প্রতীকে পরিণত হন। তার মৃত্যুতে ডেমোক্র্যাটরা উদারনীতির স্বপক্ষে আরও বেশি করে মানুষকে উদ্বুদ্ধ করার সুযোগ পেয়ে গেল বলে মনে করছেন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা।

অন্যদিকে গিন্সবার্গের শূন্যপদে ট্রাম্প তার মনোনীত একজন বিচারপতি নিয়োগ করবেন বলে ঘোষণা করেছেন। এই ঘোষণায় খুব স্বাভাবিক ভাবেই ডেমোক্র্যাটরা তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে। নির্বাচনের যেখানে আর দেড় মাসও বাকি নেই সেখানে ট্রাম্পের এই ঘোষণা অনৈতিক বলে অভিযোগ তুলেছে বিরোধীরা। যদিও ট্রাম্প সেই সমালোচনায় বিন্দুমাত্র বিচলিত না হয়ে জানিয়ে দিয়েছেন আগামীকাল অর্থাৎ শনিবারই তিনি নতুন বিচারপতির নাম ঘোষণা করবেন। এই নিয়ে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প তার কার্যকালে সুপ্রিম কোর্টে তৃতীয় বিচারপতি নিয়োগ করতে চলেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here