ডেস্ক: মালদ্বীপে বাড়তে থাকা সংকটজনক পরস্থিতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে ফোনে কথা বললেন মার্কিন রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্প। জানা গিয়েছে শুক্রবার সকালে মোদীকে ফোন করেন মার্কিন রাষ্ট্রপতি। দুই রাষ্ট্রনেতার মধ্যে মালদ্বীপের পরিস্থিতি ছাড়াও উত্তর কোরিয়া, দক্ষিণ এশিয়ার পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা হয়।

আলোচনায় দুই দেশের নেতার মালদ্বীপে তৈরি হওয়া পরিস্থিতির জট কাটানো নিয়ে আশাবাদী রয়েছেন বলেই জানা গিয়েছে। তাদের আলোচনায় স্থান পেয়েছে আফগানিস্থান ও ভারত-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের সমস্যাও। চলতি বছরে মোদীকে এটাই প্রথম ফোন মার্কিন রাষ্ট্রপতির। এই দুই নেতার সুসম্পর্ক ইতিমধ্যেই সর্বজনবিদিত। মোদীর আমেরিকা সফলকালে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীকে ‘সত্যিকারের বন্ধু’ বলে সম্বোধন করেন করেন মার্কিন রাষ্ট্রপতি। ভূতপূর্ব রাষ্ট্রপতি বরাক অবামার সঙ্গেও ভাল সম্পর্ক ছিল মোদীর।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার ৯ জেলবন্দি বিরোধী দলের রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বকে বেকসুর খালাস করে সেই দেশের শীর্ষ আদালত। তারপর থেকেই ওই দ্বীপপুঞ্জে অস্থিরতার পরিস্থিতি বিরাজমান। দেশের সুপ্রিম আদালতের নির্দেশ মানতে সাফ অস্বীকার করে দিয়েছেন কেন্দ্রীয় সরকার। এরপর দেশে জারি হয় জরুরি অবস্থা, একই সঙ্গে গ্রেফতার করা হয় প্রধান বিচারপতি সহ আরও দুই বিচারপতিকে। পরিস্থিতি এতটাই আয়ত্তের বাইরে চলে ভারতের কাছে সেনা সহায়তাও চাওয়া হয়। কিন্তু চিন এই পদক্ষেপের বিরদ্ধে নিজেদের সুর চড়ায়। ফলে ভারতীয় সেনা তৈরি থাকলেও তা এখনও পাঠানো সম্ভব হয়নি।

সকালে মোদীর সঙ্গে ট্রাম্পের কথা হওয়ার পরই হোয়াইট হাউসের তরফে এক বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়, মায়ানমার পরিস্থিতি, রোহিঙ্গা ইস্যু ছাড়াও মালদ্বীপ, আফগানিস্তান, ভারত-প্রশান্ত মহাসাগরীয় এলাকা নিয়ে আলোচনা হয়েছে দুই নেতার মধ্যে। আফগানিস্তানের নিরাপত্তা ও স্থিতাবস্থা বজায় রাখা নিয়ে সহমত হয়েছেন তাঁরা। অন্যদিকে, আগামী এপ্রিল মাসে বিদেশমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ এবং মার্কিন প্রতিরক্ষা সচিব রেক্স টিলারসন ও প্রতিরক্ষা সচিব জেমস ম্যাটিসের সঙ্গে বৈঠক প্রসঙ্গেও আলোচনা হয়েছে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here