ডেস্ক: এক তরুণীর সঙ্গে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাস ও ধর্ষণের অভিযোগে গোল্ড কোস্টে কমনওয়েলথ গেমস টেবল টেনিস দল থেকে বাদ পড়লেন সৌম্যজিৎ ঘোষ৷ প্রাক্তন জাতীয় চ্যাম্পিয়ন টেবল টেনিস তারকা সৌম্যজিৎ এই মুহূর্তে গেমসের প্রস্তুতি সারতে জার্মানিতে রয়েছেন। কিন্তু এতবড় অভিযোগের পর নিজেদের ভাবমূর্তি অক্ষু্ণ্ণ রাখতে সৌম্যজিৎকে কমনওয়েলথ গেমসের দল থেকে বাদ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে টেবিল টেনিস ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া৷ টিটিএফআই-এর কর্মসমিতির বৈঠকে শুক্রবার এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়৷ স্যম্যজিতের পরিবর্তে রিজার্ভ লিস্টে থাকা সানিল শেট্টি কমনওয়েলথ গেমসে অংশ নেবেন৷ এছাড়া বাকি চার সদস্য হলেন, জি সাথিয়ান, শরৎ কমল, অ্যান্টনি অমলরাজ ও হরমীত দেশাই। ভারতীয় ওলিম্পিক সংস্থার প্রেসিডেন্ট নরিন্দর বাত্রাআগেই জানিয়ে ছিলেন, সৌম্যজিৎ সাসপেন্ড হলে ওর জায়গায় নতুন কোনও নাম আইওএ পাঠাবে না। কারণ, এন্ট্রি পাঠানোর শেষ সময়সীমা অনেক আগেই উত্তীর্ণ হয়েছে। গেমস কমিটি আর নতুন কোনও নাম এন্ট্রি করবে না। যদি না চোট-আঘাতজনিত কারণে কেউ বাদ পড়ে থাকেন।’ এদিন টিটিএফআই-এর কর্মসমিতির বৈঠকে তেমই সিদ্ধান্ত নেওয়া হল৷

গত বুধবার বারাসতের বছর ১৯-এর এক তরুণী সৌম্যজিতের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ আনে। তাঁর বিরুদ্ধে উত্তর চব্বিশ পরগণার বারাসত মহিলা পুলিশের থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে তরুণী। যখন তাঁকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে মেয়েটি অভিযোগ জানিয়েছে তখন সে ছিল নাবালিকা। এবং সৌম্যজিৎ তাকে ট্রেনিং করাত৷ অর্থাৎ, ‘পকসো’ আইনে ‘যে রক্ষক সে ভক্ষক’ অভিযোগ প্রমাণিত হলে আদালতে কড়া শাস্তি অপেক্ষা করছে সৌম্যজিৎ-এর জন্য।

তবে অর্জুন পুরস্কার জয়ী সৌম্যজিৎ ঘোষ এদিনও তাঁর বিরুদ্ধে আনা যাবতীয় অভিযোগ অস্বীকার করেছেন৷ তাঁর দাবি, মেয়েটির সঙ্গে সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ার পর ও ব্ল্যাকমেল করতে শুরু করে। তরুণীর সমস্ত অভিযোগ ভিত্তিহীন ও মিথ্যা। মেয়েটি নাকি মাঝেমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ম্যাসেজ পাঠিয়ে সৌম্যজিৎকে ব্ল্যাকমেল করার চেষ্টা করত। তারকা খেলোয়াড়ের আরও দাবি, এটা একটা পূর্বপরিকল্পিত চক্রান্ত। কমনওয়েলথ গেমস শুরুর কয়েকদিন আগে মেয়েটি মনগড়া মারাত্মক অভিযোগ এনে খেলোয়াড়ি জীবন ধ্বংসের চেষ্টা করছে। পুলিশ অবশ্য ইতিমধ্যেই উচ্চপর্যায়ে তদন্ত শুরু করেছে৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here