bjp tmc
তুষার ভট্টাচার্য, শুভেন্দু অধিকারি, রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য
bjp tmc
তুষার ভট্টাচার্য, শুভেন্দু অধিকারি, রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য

মহানগর ডেস্ক: ইঙ্গিতে বুধবারই ঠারেঠোরে বুঝিয়ে ছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। আর বৃহস্পতিবার সেটাই নিশ্চিত করলেন সিঙ্গুরের তৃণমূল বিধায়ক রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্যের ছেলে তুষার ভট্টাচার্য। সিঙ্গুরের প্রতিপত্তিশালী বিধায়কপুত্র তুষার গেরুয়া শিবিরেই যাচ্ছেন। সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘‘শুভেন্দুদা যে দিন সিঙ্গুরে সভা করতে আসবেন সে দিনই আমি বিজেপি-তে যোগ দেব।’’

নিজে পদ্ম শিবিরে যোগ দেওয়ার পাশাপাশি, বাবা রবীন্দ্রনাথকেও তিনি বিজেপি-তে যোগ দেওয়ার জন্য অনুরোধ করবেন বলে জানিয়েছেন তুষার। তবে সিঙ্গুরে ‘মাস্টারমশাই’ হিসেবে পরিচিত রবীন্দ্রনাথবাবু এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘‘ছেলে যেতেই পারে। তার জন্য বাবাকেও যেতে হবে, এমন কোনও কারণ নেই।’’

বুধবার হুগলির চন্দননগরে বিজেপির এক সভায় শুভেন্দু দাবি করেন, তুষার তাঁকে ফোন করেছিলেন। তিনি বিজেপি-তে যোগ দিতে চান। তুষার যে শুভেন্দুকে ফোন করেছিলেন তা জানেন রবীন্দ্রনাথও। বৃহস্পতিবার এ ব্যাপারে তুষারকে প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান, ‘‘বাবার সূত্রেই দীর্ঘ দিন থেকেই শুভেন্দুদার সঙ্গে আমার যোগাযোগ। উনি যখন বিজেপি-তে যোগ দিলেন, তখন আমিও আমার ইচ্ছার কথা বলেছি। উনি রাজিও হয়েছেন।’’

২০০১ সাল থেকে সিঙ্গুরের বিধায়ক রবীন্দ্রনাথ। সিঙ্গুর আন্দোলনের অন্যতম মুখও ছিলেন তিনি। ২০১১ সালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার ক্ষমতায় আসার পরে মন্ত্রীও করা হয় তাঁকে। তবে ইদানীং দলের সঙ্গে অনেকটাই ‘দূরত্ব’ তৈরি হয়েছে তাঁর। দ্বিতীয় দফার তৃণমূল সরকারে তিনি আর মন্ত্রিত্ব পাননি। সম্প্রতি হুগলি জেলায় তৃণমূলের নেতা তথা হরিপালের বিধায়ক বেচারাম মান্নার সঙ্গে তাঁর মতবিরোধ প্রকাশ্যে আসে। দ্বন্দ্ব মেটাতে হস্তক্ষেপ করতে হয় খোদ মমতাকে। তার পর থেকেই রবীন্দ্রনাথ বিজেপি-তে যোগ দিতে পারেন বলে জল্পনা তৈরি হয়। কিন্তু সেই জল্পনা স্পষ্ট ভাবেই নাকচ করে দিয়েছিলেন মাস্টারমশাই। তবে তুষার চান, তাঁর বাবা বিজেপি-তেই আসুন। তবে তিনি আসবেন কি আসবেন না সেই সিদ্ধান্ত রবীন্দ্রনাথের উপরেই ছাড়তে চান তুষার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here