rape

মহানগর ডেস্ক: স্কুল শেষ করে বান্ধবীর সঙ্গে তার বাড়িতে গিয়েছিল ১৭বছরের কিশোরী। বান্ধবীর বাড়িতে হঠাৎ শারীরিক অসুস্থ বোধ করায় বাড়ি ফিরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় সে। এমন সময় বান্ধবীর তুতো ভাই অজয় ওই কিশোরীকে মোটর বাইকে করে কিশোরীর বাড়িতে ছাড়তে যাওয়ার নাম করে মেয়েটিকে একটি হোটেলে নিয়ে যায়। সেখানে আরও চার বন্ধু মিলে মাদক দ্রব্য খাইয়ে কয়েক ঘন্টা ধরে ধর্ষণ করে মেয়েটিকে। এরকমই নৃশংস ঘটনার সাক্ষী থাকল হরিয়ানার কুরুক্ষেত্র। ঘটনায় তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। যার মধ্যে অজয় নাবালক বলে জানা গিয়েছে।

সূত্রের খবর, প্রতিদিনের ন্যায় সোমবার সকাল ৭টার সময় তাকে স্কুলে দিয়ে আসে তার বাবা। পরিবার সূত্রে খবর, স্কুল ছুটি হওয়ার পর দুপুর দেড়টা থেকে স্পোকেন ইংলিশের ক্লাস শেষ করে বিকাল চারটের মধ্যেই বাড়ি ফিরে আসে ওই কিশোরী। কিন্তু সোমবার বিকাল গড়িয়ে সন্ধ্যা হওয়ার পরেও ওই কিশোরী বাড়ি না ফিরলে তার খোঁজাখুঁজি শুরু করে পরিজনেরা। কিন্তু তাকে খুঁজে না পেলে শেষে থানায় যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় তার পরিবার।

পরিবারের দাবি, ‘আমরা যখন থানার উদ্দেশে রওনা দিই, তখন দেখি দুজন ছেলে ও একটি মেয়ে মোটরসাইকেলে চড়ে এদিকেই আসছে। মেয়েটি মাঝখানে ছিল, আর পিছনের ছেলেটি মেয়েটির মাথায় বন্ধুক ঠেকিয়ে বসেছিল। মেয়েটি স্কুলড্রেস পরে থাকায় আমরা তৎক্ষণাৎ তাকে চিনতে পারি।’ এরপরেই পরিবারের লোকেদের তৎপরতায় মোটরসাইকেলটিকে আটক করে মেয়েটিকে উদ্ধার করা হয়। মেয়েটিকে প্রবল বিধস্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয় বলে জানিয়েছে তার পরিবার।

ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই অভিযুক্তদের পাকড়াও করতে তৎপর হয় প্রশাসন। কুরুক্ষেত্রের সাব ইন্সপেক্টর প্রবীণ কাউর বলেন, ইতিমধ্যেই আমরা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছি।’ তিনি আরও বলেন, ‘অভিষেক, নিতিন এবং অজয় নামের তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকিদের খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ। অভিষেক ওই হোটেলেই কাজ করতো বলে জানিয়েছেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here