নিজস্ব প্রতিবেদক, কৃষ্ণনগর: গতকাল দুপুরে বাড়ি থেকে সে বলে বেড়িয়েছিল টিউশন পড়তে যাচ্ছে। কিন্তু তারপর থেকেই সন্ধান মিলছিল না তার। পাড়ার লোকেরা তাকে শেষবার দেখেছিল তারই বন্ধুর সঙ্গে সাইকেলে করে ভাগীরথীর দিকে যেতে। এদিন সকালে স্থানীয় সেতুর নীচ থেকে উদ্ধার হল তার দেহ। আরও পরে নদীর চর থেকে পাওয়া যায় তাদের সাইকেল জোড়া। মেলে তাদের মোবাইল, দুজোড়া চপ্পল আর পরনের জামাপ্যান্টও। এরপরেই স্থানীয়দের বুঝতে অসুবিধা হয়নি যে নদীতে স্নান করতে নেমেই সলিল সমাধি ঘটেছে দুজনের। পরে নদীতে ডুবুরি নামিয়ে উদ্ধার হয় অপর নিখোঁজ কিশোরের দেহও। ঘটনার জেরে শোকের ছায়া নেমেছে নদিয়া জেলার নবদ্বীপ শহরের চারিচারাপাড়া আর রামকৃষ্ণ কলোনিতে।

জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার দুপুরে বাড়ি থেকে সাইকেল নিয়ে বেড়িয়েছিল শিক্ষা মন্দির স্কুলের দ্বাদশ শ্ৰেণীর ছাত্র দেবব্রত কুন্ডু। বাড়ি তার নবদ্বীপ শহরের চারিচারাপাড়াতে। বাড়িতে সে জানিয়েছিল টিউশন পড়তে যাচ্ছে। যদিও সে টিউশন পড়তে যায়নি। তারই বন্ধু তরুন সাধুখাঁর সঙ্গে সে সাইকেল নিয়ে পাড়ি জমায় শহরের গৌরাঙ্গ সেতুর কাছে চর গদখালীতে। তরুনের বাড়ি শহরের রামকৃষ্ণ কলোনীতে। নবম শ্রেণী পর্যন্ত পড়াশুনা করে পড়া ছেড়ে দেয় তরুণ। যদিও তাতে দেবব্রতর সঙ্গে বন্ধুত্বে সমস্যা তৈরি হয়নি। পড়া ছাড়ার পর স্থানীয় একটি গ্রিলের দোকানে কাজ করত তরুণ। গতকাল দুপুরে ওই দুজন বাড়ি থেকে বের হয়েছিল চর গদখালীতে যাবে বলে। এদিন সকালে গৌরাঙ্গ সেতুর কাছে ভাগীরথী নদী থেকে উদ্ধার হয় দেবব্রতর মৃতদেহ। পরে ডুবুরি নামিয়ে উদ্ধার হয় তরুনের দেহও। চরে মেলে তাদের সাইকেল, মোবাইল, চপ্পল ও পোষাক। পুলিশের ধারনা নেশা করে নদীতে স্নানে নেমে ডুবে যায় দুজনে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here